বাঁশখালী উপজেলা পরিষদ নির্বাচন: মাঠ গোছাচ্ছে আওয়ামী লীগ, নীরব বিএনপি

মুহাম্মদ মিজান বিন তাহের: একাদশ জাতীয় নির্বাচনের আমেজের রেশ কাটতে না কাটতেই বাঁশখালীতে পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশ নিতে মাঠে নামছে আওয়ামী লীগের একাধিক নতুন ও পুরাতন মুখ।এ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলায় সম্ভাব্য চেয়ারম্যান ও ভাইস-চেয়ারম্যান প্রার্থীদের প্রচারণাসহ বেড়ে গেছে দৌড়ঝাঁপ। পাড়া-মহল্লায় মতবিনিময়, কুশল বিনিময়, সংবাদ সম্মেলনে প্রার্থিতা ঘোষণা ছাড়াও সম্ভাব্য প্রার্থীদের দলীয় মনোনয়নের দাবিতে কর্মী-সমর্থকরা পোস্টার-ব্যানার-ফেস্টুন টাঙ্গানো শুরু করেছেন। একাধিক প্রার্থী কেন্দ্রেও যোগাযোগ করে নৌকা প্রতীক পেতে তদবির করছেন। পক্ষান্তরে বিএনপিসহ অন্যান্য দলের নেতা-কর্মীরা নীরব ভূমিকায় রয়েছেন। কেন্দ্রের নির্দেশনা পেলেই ভোটের মাঠে নামবেন তারা।

BanshkhaliTimes

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকসহ বিভিন্নভাবে প্রচারণা চালাচ্ছেন সরকার সমর্থিত প্রার্থীর নেতা-কর্মীরা। নির্বাচনে অংশ নিতে আগ্রহী একাধিক প্রার্থী জানান, আওয়ামী লীগের নবনির্বাচিত এমপি আলহাজ্ব মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরীর ও দলীয় সিদ্ধান্ত পেলে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশ নেব। ইতি মধ্য বিএনপির উপজেলা নির্বাচনে অংশ গ্রহন করবে কিনা তার উপরে কেন্দ্রীয় নির্দেশনার দিকে তাকিয়ে আছে বিএনপি।তবে বিএনপি থেকে নতুন কে প্রার্থী হচ্ছেন তা এখনও জানা যায়নি।

ইতিমধ্য চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করার প্রচারণা চালাচ্ছেন চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক খোরশেদ আলম,কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা সাইফুদ্দিন আহমদ রবি,বাঁশখালী উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান মৌলাভী নুর হোসেন,আওয়ামীলীগ নেতা আলহাজ্ব রেজাউল করিম চৌধুরী, উপেজেলা চেয়ারম্যান সমিতির সভাপতি ও কালীপুর ইউপি চেয়ারম্যান এডভোকেট আ.ন.ম শাহাদত আলম,শীলকুপের সাবেক চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক সিকদার,চাম্বল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মুজিবুল হক চৌধুরী,ছনুয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হারুনুর রশিদ,এডভোকেট রাহাত চৌধুরি রনি।

এছাড়া ভাইস চেয়ারম্যান পদে একমাত্র সম্ভাব্য প্রার্থীর তালিকায় রয়েছে উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি রেহেনা আক্তার কাজেমী,চট্টগ্রাম দক্ষিন জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক দিলোয়ারা কায়েশ সুমি,

এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা আওয়ামী লীগ সাবেক সাধারন সম্পাদক ও চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক খোরশেদ আলম জানান,
গত দশ বছরে আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়নের চিত্র দেখে বাঁশখালীসহ সারাদেশে মানুষ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীকে বিপুল ভোটে নির্বাচিত করেছে। আগামী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনও সর্বস্তরের জনগণ আবারও নৌকের প্রার্থীকে নির্বাচিত করবে ইনশআল্লাহ।

তিনি আরো বলেন, স্থানীয় সাংসদ, জেলা ও উপজেলার তৃণমূল পর্যায়ে রিপোর্ট দেখে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, জননেত্রী শেখ হাসিনা উপজেলা চেয়ারম্যান পদেপ্রার্থী চুড়ান্ত করবেন।
আমি সারাজিবন আওয়ামীলীগের রাজনিতীর সাথে সম্পৃক্ত। বাঁশখালী আপামর জনগণের পাশে আমি সব সময় সুঃখে দুঃখে ছিলাম,যার কারনে বাঁশখালীর তৃনমূল আওয়ামীলীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতা কর্মীরা সাথে আছে।আমি ছাত্র থেকে আওয়ামী লীগের রাজনীতি করে আসছি, বাঁশখালী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছি, বর্তমানের জেলা আওয়ামী লীগের দায়িত্ব আছি, উপজেলা থেকে শুরু করে পৌরসভা ও ইউনিয় পর্যায়ে দলীয় প্রতিটি মিটিং মিছিলে অংশ গ্রহন করে আছি। আমার বিশ্বাস এই উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে আমাকে দলীয় মনোনয়ন দেবে। দলীয় ভাবে মনোয়ন পেলে বাঁশখালী উপজেলা চেয়ারম্যান পদ টা নেত্রীকে উপহার দিতে পারব ইনশাআল্লাহ।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গেছে,মার্চের প্রথম সপ্তাহ থেকে আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে ৬ থেকে ৭ ধাপে। এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার মাঝখানের সময়ে ১/২ ধাপের নির্বাচন হতে পারে। এই নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা হতে পারে চলতি জানুয়ারি মাসের শেষ সপ্তাহে অথবা ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে। অপর ৪ থেকে ৫ ধাপের নির্বাচন জুলাই থেকে নভেম্বর মাসের মধ্যে হওয়ার সম্ভাবনা।বর্তমানে দেশের ৪৯২টি উপজেলা পরিষদ রয়েছে। আইন অনুযায়ী, কোনো উপজেলা পরিষদের মেয়াদ পূর্তির আগের ছয় মাসের মধ্যে নির্বাচন করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে।

উল্লেখ্য, একটি প্রথম শ্রেণীর পৌরসভা ও ১৪ টি ইউনিয়ন নিয়ে বাঁশখালী উপজেলা। এই উপজেলায় ভোটার রয়েছেন ৩ লাখ ৩১ হাজার ২৩ জন।

Spread the love

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *