শান্তিতে নোবেল পেলেন মুকওয়েজি ও নাদিয়া

এ বছর শান্তিতে যৌথভাবে নোবেল পেলেন ইরাকের মানবাধিকার কর্মী নাদিয়া মুরাদ এবং কঙ্গোর চিকিৎসক ডেনিস মুকওয়েজি। উভয়েই যুদ্ধবিধ্বস্ত এলাকায় যৌন হয়রানি বন্ধে কাজ করেছেন। শুক্রবার নোবেল কমিটি এ পুরস্কার ঘোষণা করে।

নোবেল কমিটি জানিয়েছে, ডেনিস মুকওয়েজি একজন স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ। তিনি ও তার টিম যুদ্ধবিধ্বস্ত কঙ্গোয় হতাহতদের চিকিৎসার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন।

অন্যদিকে, ২৫ বছর বয়সী নাদিয়া মুরাদ ইরাকের ইয়াজিদি সম্প্রদায়ের সদস্য, যাকে আইএস জঙ্গিরা আটকে রেখে যৌন দাসী হিসেবে ব্যবহার করে। আইএসের হাত থেকে মুক্তি পাওয়ার তিনি নারী অধিকার নিয়ে কাজ করছেন।

নরওয়ের রাজধানী অসলোতে নোবেল কমিটির প্রধান বেরিট রেইস-অ্যান্ডারসন শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, যুদ্ধবিধ্বস্ত ও সংঘাতপূর্ণ এলাকায়, যৌন সহিংসতাকে যেখানে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করা হয়, যৌন সহিংসতা বন্ধে অবদান রাখায় তাদের নোবেল পুরস্কারে মনোনীত করা হয়েছে।

অ্যান্ডারসন বলেন, ‘ডেনিস মুকওয়েজি তার ভিকটিমদের রক্ষায় আত্মনিয়োগ করেছেন। আর নাদিয়া মুরাদ হলেন যৌন সহিংসতার শিকার ও প্রত্যক্ষদর্শী। যিনি তাকে ও অন্যদের অপব্যবহারের ঘটনা প্রকাশ করেছেন। উভয়ই (মুকওয়েজি ও নাদিয়া) তাদের নিজ নিজ অবস্থান থেকে যুদ্ধবিধ্বস্ত এলাকায় যৌন সহিংসতা বন্ধে উল্লেখযোগ্য অবদান রেখেছেন।’

এর আগে গত বছর ইন্টারন্যাশনাল ক্যাম্পেইন টু অ্যাবোলিশ নিউক্লিয়ার ওয়াপনস বা আইসিএএন শান্তিতে নোবেল পুরস্কার লাভ করে।

প্রসঙ্গত, নাদিয়া মুরাদ হলেন শান্তিতে নোবেল পাওয়া দ্বিতীয় কম বয়সী ব্যক্তি। এর আগে ২০১৪ সালে মাত্র ১৭ বছর বয়সে শান্তিতে নোবেল পান পাকিস্তানি মালালা ইউসুফজাই।

উল্লেখ্য, ১৯০১ সাল থেকে নোবেল পুরস্কার প্রদান করা হচ্ছে। তখন থেকে এ পর্যন্ত ৯৯ বার নোবেল পুরস্কার ঘোষণা করা হলো। পুরস্কারের ছয়টি ক্যাটাগরির মধ্যে পাঁচটি ক্যাটাগরির বিজয়ী সুইডিশ নোবেল কমিটি ঘোষণা করলেও শান্তিতে নোবেল পুরস্কারের ঘোষণা দিয়ে থাকে নরওয়ে কমিটি।

১৮৯৫ সালের নভেম্বর মাসে আলফ্রেড নোবেল তার মোট উপার্জনের ৯৪ শতাংশ উইল করে তার মাধ্যমে নোবেল পুরস্কার প্রবর্তন করেন। এই বিপুল অর্থ দিয়েই ১৯০১ সাল থেকে শুরু হয় পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, চিকিৎসাবিজ্ঞান, সাহিত্য ও শান্তিতে নোবেল পুরস্কার প্রদান। ১৯৬৮ সালে তালিকায় যুক্ত হয় অর্থনীতি। তবে পুরস্কার ঘোষণার আগেই মৃত্যুবরণ করেছিলেন আলফ্রেড নোবেল।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.