‘বিশ্ব পর্যটন দিবস আজ’

২৭ সেপ্টেম্বর বিশ্ব পর্যটন দিবস। জনসাধারণের মধ্যে পর্যটন বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে এবারও বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশে দিবসটি নানা আয়োজনে পালিত হবে। পর্যটনের ভূমিকা সম্পর্কে জনসচেতনতা বৃদ্ধিসহ সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক এবং অর্থনৈতিক উপযোগিতাকে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দেয়া এ দিবসের লক্ষ্য।
জাতিসংঘের বিশ্ব পর্যটন সংস্থার (ইউএনডব্লিউটিও) উদ্যোগে ১৯৮০ সাল থেকে ২৭ সেপ্টেম্বর দিবসটি পালন করা হয়।
এ বছর দিবসটির প্রতিপাদ্য হচ্ছে- ‘পর্যটন শিল্প বিকাশে তথ্য প্রযুক্তি’। এবারের প্রতিপাদ্যে পর্যটন শিল্পের উন্নয়নে তথ্য প্রযুক্তির উপর গুরুত্বারোপ করা হয়েছে। প্রতিবছরের মতো এবারও বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশন ও বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডসহ বিভিন্ন পর্যটন সংস্থা দিবসটি উপলক্ষে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে।
দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন।
২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর মধ্য আয়ের দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে পর্যটন শিল্পের অবদান নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্ট সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে আজ বুধবার এক বাণীতে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেন, নিজেদের সংস্কৃতি, খাদ্যাভ্যাস, হস্তশিল্প, খেলাধুলা ও উৎসবসমূহ দেশি বিদেশি পর্যটকদের কাছে আকর্ষণীয়ভাবে তুলে ধরার মধ্যেই রয়েছে অফুরন্ত সুযোগ ও সম্ভাবনা। নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টিসহ দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জনে পর্যটন শিল্পের ভূমিকা খুবই উজ্জ্বল।
তিনি বলেন, প্রযুক্তিগত উত্তরণ ঘটিয়ে দেশের পর্যটন শিল্পের প্রচার ও উন্নয়নে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি ট্যুর অপারেটর, হোটেল ও এভিয়েশন সংশ্লিষ্ট সকলকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।
পর্যটন ব্যবসা পরিচালনায় ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে অবদান রাখতে সরকারি উদ্যোগের পাশাপাশি বেসরকারি উদ্যোক্তাদেরও স্বতঃস্ফূর্তভাবে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী তার বাণীতে বলেন, পর্যটন শিল্পের সর্বক্ষেত্রে ডিজিটাল ব্যবস্থা প্রবর্তন করে এই শিল্পকে একটি অন্যতম অর্থনৈতিক খাত হিসেবে প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।
বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষে আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর (শুক্রবার) ঢাকায় শুরু হচ্ছে ৭ম এশিয়ান ট্যুরিজম ফেয়ার-২০১৮। বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশন ও বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের সার্বিক সহযোগিতায় পর্যটন বিচিত্রা এই ট্যুরিজম ফেয়ারের আয়োজন করছে। রাজধানীর বসুন্ধরার ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটিতে আগামী ২৮, ২৯ ও ৩০ সেপ্টেম্বর সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত মেলা চলবে।
বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী এ কে এম শাহজাহান কামাল আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর বেলা ১১টায় মেলা উদ্বোধন করবেন।
মেলার প্রথম দিন ২৮ সেপ্টেম্বর বিকেল ৩টায় অনুষ্ঠেয় এক সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার উপস্থিত থাকবেন বলে আয়োজকরা জানিয়েছেন।
মেলায় বাংলাদেশসহ ভারত, নেপাল, চায়না, ইন্দোনেশিয়া, ফিলিপাইন, সিঙ্গাপুরের বিভিন্ন পর্যটন সংস্থার ১২০টি স্টল অংশগ্রহণ করবে। বাসস।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.