বাঁশখালীর সন্তান নুরীর বইয়ের মোড়ক উন্মোচন শুক্রবার

তাফহীমুল ইসলাম: চট্টগ্রামের বাঁশখালীর কৃতি সন্তান, শিশু সাহিত্যিক আনোয়ারুল হক নুরীর নতুন শিশুতোষ গল্পগ্রন্থ ‘দাদুর হদ্দা’ এর মোড়ক উন্মোচন শুক্রবার। জানা যায়- আগামী ২১ তারিখ শুক্রবার নগরীর আন্দরকিল্লাহস্থ চট্টগ্রাম একাডেমীর ফয়েজ নুর মিলনায়তনে সকাল ১০ টায় মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠান শুরু হবে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন- বাংলা একাডেমী পুরস্কার প্রাপ্ত শিশু সাহিত্যিক ও সাংবাদিক রাশেদ রউফ, বিশেষ অতিথি হিসেবে শিশু সাহিত্যিক এমরান চৌধুরী ও উৎপল কান্তি বড়ুয়া উপস্থিত থাকবেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করবেন- কবি তান্নি চৌধুরী। ২০১৯ সালের বইমেলাকে লক্ষ্য করে শিশু সাহিত্যিক আনোয়ারুল হক নুরীর বইটি প্রকাশিত হচ্ছে দেশের সাড়া জাগানো প্রকাশনী ‘সাহিত্য রস’ থেকে। এব্যাপারে জানতে চাইলে লেখক আনোয়ারুল হক নুরী জানান- “লিখার চেষ্টা করি মাত্র। পাঠকের ভালোবাসায়, নানা বাঁধা পেরিয়ে চলতি বছর একুশে বইমেলায় একটি কাব্যগ্রন্থ প্রকাশ করেছি। নাম- ‘হাসিখুশির জোনাক জ্বলে’। তাতে পাঠকের ভালোবাসা আমাকে মুগ্ধ করেছে। আমার ত্রিশ বছরের সাধনাকে মূল্যায়ন করতে গিয়ে ‘সাহিত্য রস’ প্রকাশনী শিশুতোষ গল্পগ্রন্থ ‘দাদুর হদ্দা’ ছাপিয়ে দিচ্ছে। বইটি পড়ে আশা করি শিশুরা খুশি হবে। দোয়া করবেন- লেখালেখির মাধ্যমে যাতে সকলের ভালোবাসা পেতে পারি।” লেখক আনোয়ারুল হক নুরীর গ্রামের বাড়ি বাঁশখালী উপজেলার জলদীতে। তিনি বর্তমানে একটি বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা পেশায় নিয়োজিত আছেন। শিক্ষকতার পাশাপাশি অবসর সময় পার করছেন লেখালেখির কাজে। ছাত্রজীবন থেকেই নিজেকে লেখালেখির সাথে জড়িয়ে রেখেছেন। খ্যাতিমান এই শিশু সাহিত্যিকের বই প্রসঙ্গে প্রকাশক বিন আরফান বলেন- “বাংলা সাহিত্যের একটি রসালো সুবাসযুক্ত ফুলের নাম আনোয়ারুল হক নূরী। যে ফুল থেকে পাঠক অনায়াসে খাঁটি মধু সংগ্রহ করতে পারে। প্রকাশক হিসাবে বড্ড দেরি করেছি তার সাহিত্য রস পাঠকের নিকট পৌঁছে দিতে। তবু স্বস্তিবোধ করছি, তাঁর জীবনের শেষকালে এসে হলেও তার সন্ধান পেয়েছি। আশা করছি, শিশুসহ সব শ্রেণির পাঠকেরই তার গল্পগুলো হৃদয় ছুঁয়ে যাবে।” লেখক মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে ভক্ত, পাঠকদের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। বিজ্ঞপ্তি।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.