এক্সিডেন্টে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩, আশঙ্কাজনক ৩ জন

মুহাম্মদ মিজান বিন তাহের: বাঁশখালী উপজেলার আনোয়ারা-বাঁশখালী পিএবি প্রধান সড়কের শেখেরখীল রাস্তার মাথা এলাকার দক্ষিন পাশে প্রধান সড়কে আজ সোমবার (৯ জুলাই) দুপুর ১.৩০ মিনিটের দিকে চট্টগ্রাম শহর থেকে ট্রাকটি শেখেরখীল রাস্তার মাথায় পৌঁছলে ট্রাকের সিলিন্ডার বিষ্ফোরিত হয়ে ট্রাকটিতে আগুন ধরে ঘটনাস্থলে ট্রাক ড্রাইবার নাম অজ্ঞাত সহ শেখেরখীল ছমদ আলী সিকদার বাড়ীর ৮ নং ওয়ার্ডের মৃত মোতাহের ইসলামের পুত্র নুর হোসাইন (৩০) পুড়ে মারা যায়। অপরদিকে পুঁইছুড়ি প্রেম বাজার থেকে বাঁশখালী উপজেলার সদরের দিকে মোটরসাইকেল নিয়ে আগত এম এস এগ্রো ক্যামিকেল কীটনাশক কোম্পানীর বাঁশখালীতে কর্মরত বরিশাল জেলার মুলাদী থানার হোসনাবাগ এলাকার গাছুয়া ইউনিয়নের মৃত শাহআলম খানের পুত্র আব্দুল লতিফ খান (৪৫) সহ ৩জন একই গাড়িতে করে আসার পথে ট্রাকটির মুখোমুখি হয়ে তারাও নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে নিচে দিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে মোটরসাইকেলটি ট্রাকটির নিচে পড়ে সকলে আগুনে পুড়ে যায়। তাদের মধ্যে আব্দুল লতিফকে বাঁশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষনা করেন।
অপরদিকে আগুনে পুড়ে যাওয়া গুরুতর আহত চকরিয়া দুলাহাজারা মালুমঘাট এলাকার আব্দুর রশিদের পুত্র নুরুল কবির (২২), কক্সবাজার ফিসারীঘাট নতুন পাড়া এলাকার মৃত নুর মোহাম্মদের পুত্র সালামত (৪০),কক্সবাজার মালুমঘাট এলাকার কামাল উদ্দীনের পুত্র নুরুল আলম (২০) এর অবস্থা অাশঙ্ককাজনক হলে তাদেের চট্টগ্রাম চমেক হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে।

বাঁশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জরুরী বিভাগে কর্মরত ডাক্তার মনিরা ইয়াছমিন ও আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাক্তার তৌহিদুল আনোয়ার বলেন, ট্রাকে পুড়ে যাওয়া রোগী গুলোর অবস্হা খুব আশঙ্কাজনক তার মধ্যে একজন হাসপাতালে মারা যায়, অপরাপর গুরুত্বর পুড়ে যাওয়া তাদের অবস্থাও ভাল না। আমরা তাদের চট্টগ্রাম চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করেছি।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.