গুনাগরিতে আগুনে পুড়ে গেছে ৪টি দোকান

মুহাম্মদ মিজান বিন তাহের: বাঁশখালী উপজেলার গুনাগরি এলাকায় অগ্নিকান্ডে ৪টি দোকান পুড়ে ছাঁই হয়ে গেছে। আগুনের লেলিহান শিখায় পুড়ে ছাঁই হয়ে গেছে ঔষুধের দোকান, হার্ডওয়ারের দোকান, ডেনটিং এর দোকান ও চায়ের দোকান।
জানা যায়, বাঁশখালী ৫ নং কালীপুর ইউনিয়নের গুনাগরি মহিলা মাদ্রাসার সামনে আনোয়ারা- বাঁশখালী পিএবি প্রধান সড়কের পাশে অবস্থিত দোকানে সোমবার (২৮ মে) সন্ধা ৬ টার সময় নুরুল আবচারের হার্ডওয়ারের দোকান থেকে গ্যাস সিলিন্ডার বিষ্ফোরিত হয়ে আগুনের সূত্রপাত হয়ে মুহূর্তের মধ্যে আগুনের লেলিহান শিখা চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে। চোখের পলকে আগুন ছড়িয়ে পড়ার কারণে দোকানে থাকা কোনও জিনিসপত্র বের করা সম্ভব হয়নি।
অগ্নিকান্ডে আনুমানিক প্রায় ৩০ লক্ষাধিক টাকার মত ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ক্ষতিগ্রস্থরা জানান। অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থ মালিকরা হলেন মৌলানা এহসান, নুরুল আবচার, মিন্টু ও কাঞ্চন ।

ক্ষতিগ্রস্থ ঔষুধের দোকানের মালিক মাওলানা এহসান জানান, পবিত্র রমজান মাসে ইফতার করার ঠিক আগ মুহূর্তে স্থানীয় নুরুল আবচারের দোকান থেকে অাগুনের সূত্রপাত হয়। আগুনে আমার ঔষুধের দোকানের আনুমানিক ৫ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এবং অপরাপর দোকানসহ সকলের অনুমানিক ৩০ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়।

এদিকে ঘন্টাব্যাপী অগ্নিকাণ্ড চললে ফায়ার সার্ভিসসহ ৯৯৯ নাম্বারে ফোন করে খবর দিলেও ঘটনাস্থলে না যাওয়ার অভিযোগ ভুক্তাভোগীদের। তবে অগ্নিকান্ডে পুড়ে যাওয়া দোকান স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান এডভোকেট আ.ন.ম শাহাদত আলমসহ কালীপুর রামদাশ মুন্সীর হাট পুলিশ ফাঁড়ি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.