পরিচ্ছন্ন বাঁশখালীর স্বপ্ন দেখেন আমাদের মোরশেদ

আবু ওবাইদা আরাফাত: তরুণরাই পরিবর্তনের কারিগর। দায়িত্বশীল ব্যক্তিদের উদাসীনতা যেখানে হতাশার ধোঁয়াশায় ফেলে দেয়, সেখানে তারুণ্যের ইতিবাচক উদ্যোগ আমাদের ঘুরে দাঁড়ানোর স্বপ্ন দেখায়।

নিজের পরিবার, ক্যারিয়ার এবং আনুষঙ্গিক ব্যস্ততার মধ্যেও কেবল দেশের জন্য, মানুষের জন্য ‘কিছু করা’র তাড়নাসম্পন্ন যুবকের মধ্যে অন্যতম বাঁশখালীর সন্তান মো: মোরশেদুল আলম।

দেশকে পরিচ্ছন্ন রাখার মিশনে তুখোড় কর্মী এই যুবক বিডি ক্লিন বাঁশখালী শাখার প্রতিষ্ঠাতা। কাজ করছেন বিডি ক্লিন চট্টগ্রাম ম্যানেজমেন্ট টিমেও।

বাঁশখালী টাইমসকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন- ‘আগামী ১ মাসের মধ্যে বাঁশখালী শাখার কার্যক্রম শুরু হবে। আমরা এখন সদস্য সংগ্রহ করছি। আমাদের স্বপ্ন বাঁশখালীর মত প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি এই জনপদকে পরিচ্ছন্ন উপজেলা হিসেবে সারাদেশে পরিচিতি পাবে। আমরা সে লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছি।’

এছাড়া তিনি দীর্ঘদিন ধরে রক্ত নিয়ে কাজ করছেন বিভিন্ন রক্তদানভিত্তিক সংগঠনে।

তিনি বর্তমানে রক্তের সন্ধানে বাঁশখালী ও দক্ষিণ চট্টগ্রাম ব্লাড ব্যাংক এর এডমিন, নবসূর্য ব্লাড ব্যাংক, Volanteers of Bangladesh এর মডারেটর, বাঁশখালী ব্লাড ব্যাংক, অভিযাত্রিক ব্লাড ব্যাংক এর মেম্বার হিসেবে কাজ করে যাচ্ছেন।

সংগঠন সম্পর্কে তিনি বলেন- ‘পরিচ্ছন্ন বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখে বিডি ক্লিন মাত্র ২৪ জন সদস্য নিয়ে ঢাকায় শুরু করেছিলো পরিচ্ছন্ন অভিযান। বর্তমানে সে অভিযানে হাজারো সদস্য অংশগ্রহণণ করেছে এবং করছে। শুধুমাত্র ঢাকা শহরই নয় বিডি ক্লিন এতোদিন শুধু বিভাগীয় শহর গুলোতে কাজ করে এসেছে কিন্তু বিডি ক্লিন এবার দেশের সকল জেলা উপজেলায় কাজ করার লক্ষ্যে মাঠে নেমেছে।
বিডি ক্লিন এর প্রধান সমন্বয়ক ফরিদ উদ্দীন মিলন। আমাদের চট্টগ্রাম বিভাগ এর প্রধান সমন্বয়ক আদিল কবির।

বাঁশখালী শাখা সম্পর্কে বলেন- ‘বাঁশখালী বিডি ক্লিন এর মাধ্যমে প্রত্যেকটি ইউনিয়ন এবং গ্রামে গ্রামে পরিচ্ছন্নতার বার্তা প্রেরণ করা। পাশাপাশি গরীব অসহায় রোগীকে শীতবস্ত্র, ইফতার, পোশাক এবং আরো ভিন্ন কিছু কার্যক্রম নিয়ে কাজ করব ইনশা আল্লাহ।’

বাঁশখালী টাইমস সম্পর্কে এই তরুণ বলেন-
বাঁশখালী টাইমস সব সময় সত্য প্রকাশ করে এবং আশাকরি ভবিষ্যতেও সঠিক সব নিউজ তুলে ধরবে। আর বাঁশখালীর অবহেলিত রাস্তা, গ্রাম এবং মানুষদের নিয়ে লিখবে।
বাঁশখালী টাইমসের প্রতি আরেকটি অনুরোধ আমাদের বাঁশখালীর টুরিস্ট স্পট গুলো নিয়ে লিখতে হবে যেন বাঁশখালীর প্রতিনিধিরা টুরিস্ট স্পটগুলো মেরামত করে।

বাঁশখালীর অনুকরণীয় এই তরুণ উদ্যোক্তার বাড়ি ৪ নং ইউনিয়ন ৭ নং ওয়ার্ড মধ্যম ইলশায়। তিনি বর্তমানে
সরকারী হাজী মোহাম্মাদ মহসিন কলেজ অনার্সে অধ্যায়নরত আছেন।

[বাঁশখালীর এমন সব কৃতি সন্তানদের সম্পর্কে আমাদের জানান- [email protected] আমরা তাঁদেরকে সবার সামনে তুলে ধরতে চাই ]

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.