কোটা সংস্কারের দাবিতে চট্টগ্রামে আজও বিক্ষোভ

কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলন চট্টগ্রামেও ছড়িয়ে পড়েছে। রোববার এই দাবিতে চট্টগ্রাম নগরীতে মিছিল হয়েছে। সোমবার একই দাবিতে চবির শাটলট্রেন অবরোধের পাশাপাশি চবির বিভিন্ন বর্ষের ক্লাস বর্জন করেছে শিক্ষার্থীরা।
কোটা সংস্কারের দাবিতে ঢাকায় অান্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর পুলিশ ও ছাত্রলীগের হামলার প্রতিবাদে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শাটল ট্রেন অবরোধ করে রাখে শিক্ষার্থীরা। সকাল ৯টা থেকে শত শত শিক্ষার্থী রেললাইনের ওপর দাঁড়িয়ে কোটা সংস্কারের স্লোগান দিচ্ছেন।
সোমবার (৯ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ষোলশহর স্টেশনে শাটল ট্রেনটি অাটকে রাখেন তারা। সকাল ৮টা, সাড়ে ৯টার শাটল ছেড়ে গেলেও সাড়ে ১০টার শাটলটি যাওয়ার সময় অান্দোলনরত কয়েকশ’ শিক্ষার্থী বাধা দেন।
ষোলশহর স্টেশনের মাস্টার সাহাব উদ্দিন বলেন, ‘সকাল থেকে দুটি ট্রেন ছেড়ে গেলেও সাড়ে ১০টার ট্রেনটি শিক্ষার্থীরা আটকে দিয়েছে। বর্তমানে তারা বিক্ষোভ করছে। পুলিশ এসে পরিস্থিতি শান্ত রাখার চেষ্টা করছে। ‘কোটা সংস্কারের দাবিতে ঢাকায় অান্দোলনরত শিক্ষার্থীদের উপর পুলিশ ও ছাত্রলীগের হামলার প্রতিবাদে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস বর্জন করে রাস্তায় নেমে এসেছেন শিক্ষার্থীরা। দাবি অাদায় না হওয়া পর্যন্ত অন্দোলনকারীরা অনির্দিষ্টকালেরর জন্য ক্লাস বর্জন করারও ঘোষণা দিয়েছে। পাশাপাশি নগরীর ষোলশহরে কোটা সংস্কারের দাবিতে বিক্ষোভ করছে আন্দোলনকারীরা।
এদিকে সোমবার(৯ এপ্রিল) সকাল ১০টার দিকে বাংলা বিভাগের শিক্ষার্থীরা প্রথম ক্লাস বর্জন করে রাস্তায় নেমে পড়েন। পরে প্রত্যেক বিভাগ ও ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থীরা একাত্বতা জানিয়ে তাদের সাথে শরিক হন।
শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত সবাই জড়ো হয়ে কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির সামনে থেকে শাটল ট্রেন স্টেশনে দিকে যাচ্ছেন। সেখানে তারা অবস্থান কর্মসূচি পালন করবেন বলে অান্দোলনরত কয়েকজন শিক্ষার্থী জানিয়েছেন।
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অান্দোলনের সমন্বয়ক মো. অারজু বলেন, ‘কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে অামরা অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্লাস বর্জন করার ঘোষণা দিয়েছি। সকাল থেকে প্রত্যেক বিভাগ ও ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থীরা ক্লাস বর্জন করেছে। অামাদের সঙ্গে অনেক শিক্ষকও যোগ দিয়েছেন।’
বিশ্ববিদ্যালয়ের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মহসিন মজুমদার বলেন, ‘সকালে ছোট ছোট দলে ভাগ হয়ে কয়েকজনকে অান্দোলন করতে দেখেছি। ‘
বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ- পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক রবিন বলেন, ‘ এখনও ক্লাস বর্জনের বিষয়টি জানি না। তবে অামি খবর নিয়ে দেখতেছি।’
এদিকে, নগরীর ষোলশহর রেলস্টেশনে পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারীরা বিক্ষোভ করছে। এতে অংশ নিয়েছে হাজারো শিক্ষার্থী।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.