মিয়ানমারকে অস্ত্র দিয়ে পাশে দাঁড়াচ্ছে রাশিয়া

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর সেনাবাহিনী ও উগ্রপন্থী বৌদ্ধদের দমন-পীড়ন, জ্বালাও-পোড়াও, খুন-ধর্ষণ নিয়ে তীব্র আন্তর্জাতিক সমালোচনার ঝড় থেকে রক্ষায় দেশটিকে সহায়তার অঙ্গীকার করেছে রাশিয়া।

মস্কো এমন এক সময় মিয়ানমারকে এ সহায়তার অঙ্গীকার করল যখন সে দেশ থেকে প্রাণ বাঁচাতে সাড়ে ছয় লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ-শিশু পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। নির্মমতার স্মৃতি এই রোহিঙ্গাদের মনে এতটাই টাটকা ও দগদগে ক্ষতের মতো যে, বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের মধ্যে স্বাক্ষরিত চুক্তির আওতায় তাদের অনেকে নিজ দেশে ফেরত যেতে অনিচ্ছুক।

জাতিসংঘ রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর ওই নির্যাতনকে ‘জাতিগত নির্মূল’ অভিযান বলে আখ্যায়িত করেছে। এ ছাড়া বিভিন্ন দেশ ও আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা মিয়ানমারের ওই কর্মকাণ্ড গণহত্যার শামিল হতে পারে বলে সমালোচনা করেছে। রোহিঙ্গাদের ওপর বর্বরতা নিয়ে মুখে কুলুপ এঁটে রাখায় শান্তিতে নোবেল পুরস্কারজয়ী মিয়ানমারের ‘গণতন্ত্রকামী’ নেত্রী ও দেশটির কার্যত নেতা অং সান সু চিরও কঠোর নিন্দা জানিয়েছে তারা।

রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শয়গু বলেন, বিশ্বকে রাখাইন পরিস্থিতি নিয়ে বোঝাতে মিয়ানমারের চেষ্টায় সহায়তা দেবে তাঁর দেশ। এর আগে সপ্তাহান্তে মিয়ানমারের রাজধানী নেপিডোতে সফর করেন তিনি। সফরে তিনি দেশটির প্রতিরক্ষা সার্ভিসের কমান্ডার-ইন-চিফ সিনিয়র জেনারেল মিন অং হ্লাইং ও অন্য শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন।

রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘উত্তরাঞ্চলীয় রাখাইন রাজ্যে সন্ত্রাসী হামলার সঙ্গে রাজনৈতিক সংযোগ রয়েছে এবং নানা সমস্যার সম্মুখীন হওয়া সত্ত্বেও মিয়ানমার সরকার, সেনাবাহিনী ও সব জনগণকে অবশ্যই এসব সমস্যা মোকাবিলার পথ খুঁজে বের করতে হবে।’

ফেসবুকে মিন অং হ্লাইংয়ের দেওয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়, ‘রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী আশ্বস্ত করেছেন, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে মিয়ানমারের প্রকৃত অবস্থা বোঝাতে রাশিয়ার গণমাধ্যম মিয়ানমারকে সহায়তা করবে।’

রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রীর সফরে দুই দেশের সশস্ত্র বাহিনীর মধ্যে প্রশিক্ষণসহ প্রযুক্তিগত সহযোগিতা জোরদার করা, নৌবাহিনীতে যুদ্ধজাহাজ ও সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের মধ্যকার শুভেচ্ছা সফর বাড়ানো এবং সর্বোপরি দুই দেশের মধ্যে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক আরও শক্তিশালী করা নিয়ে উভয় পক্ষ আলোচনা করেছে।

যুদ্ধবিমান দিচ্ছে রাশিয়া

বার্তা সংস্থা আরআইএর খবরের বরাত দিয়ে গতকাল রয়টার্স বলেছে, রাশিয়া মিয়ানমারের কাছে ৬টি এসইউ-৩০ যুদ্ধবিমান বিক্রি করবে। রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে এ তথ্য পরিবেশন করা হয়।
সূত্র: প্রথম আলো

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.