খুটাখালীর পীর সাহেব হুজুর আর নেই

দরবারে আলীয়া গারাংগিয়ার উজ্জ্বল নক্ষত্র, হযরত বড় হুজুর (রহঃ), ও হযরত ছোট হুজুর (রহঃ) এর সুযোগ্য খলিফা…
কক্সবাজার জেলার চকরিয়া উপজেলার “খুটাখালী’র পীর সাহেব হুজুর”
দক্ষিণ চট্টলার আধ্যাত্মিক জগতের শিরোমনি আলেমেদ্বীন শাহ্ সুফি পীরে কামেল “আলহাজ্ব হযরত মৌলানা হাফেজ আব্দুল হাই” (রহঃ) আজ ২২ জানুয়ারী দিবাগত রাতে আলী কদম একটি সীরতুন্নবী (সঃ) মাহফিলে অবস্থানকালে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাঁকে আলী কদম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে নেওয়া হয় এবং রাত আড়াইটার দিকে হাসপাতালে তিনি ইন্তেকাল করেন।
“ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজেউন”

হুজুরের মৃত্যূতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।
আগামিকাল রোজ মঙ্গলবার ২৩ জানুয়ারি বিকাল পাঁচ’টায় খুটাখালী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে হুজুরের জানাজা নামাজ অনুষ্ঠিত হবে।
খুটাখালী পীর-হযরত মৌলানা আলহাজ্ব আবদুল হাই হুজুর গ্রামের বাড়ী সাতকানিয়া উপজেলাধীন-
সোনাকানিয়া-গারাংগিয়া ইউনিয়ন- গারাংগিয়া গ্রামের রঙ্গিলা পাড়ায়।

মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮০ বছর। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত ডাক্তার উপ-সহকারি মেডিকেল অফিসার মো. আমিনুল ইসলাম তাঁর মৃত্যু নিশ্চিত করেছেন।

রবিবার দিবাগত রাত সোয়া একটার সময় তাঁকে হাসপাতালে আনা হয়। এ সময় তিনি তীব্র শ্বাসকষ্টে ভূগছিলেন বলে কর্তব্যরত ডাক্তার ও উপস্থিত শুভকাঙ্খীরা জানান।

রবিবার (২১ জানুয়ারি) আলীকদম বাজার ব্যবসায়ীদের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত সীরাতুন্নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম মাহফিলের দ্বিতীয় অধিবেশনে তাঁর সভাপতিত্ব করা কথা ছিলো।

বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি নাছির উদ্দিন সওদাগর জানান, ‘হুজুর আমার বাসায় রবিবার বিকেল থেকে অবস্থান করছিলেন। রাতে মাহফিলে তাঁর সভাপতিত্ব করার কথা ছিলো। কিন্তু হুজুর অসুস্থতাবোধ করায় আমার বাসায় তিনি বিশ্রাম নিচ্ছিলেন। তাঁর শ্বাসকষ্ট বেড়ে গেলে রাত সোয়া একটার সময় বাসা থেকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হয়।

হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক মো. আমিনুল ইসলাম বলেন, ‘হাসপাতালের জরুরী বিভাগে তাকে রাখা হয়। এ সময় হুজুরের শ্বাসকষ্ট হচ্ছিল। তাই তাঁকে অক্সিজেন, স্যালাইন ও ইনজেকশান দেওয়ার হয়। কিন্তু ইশারায় তিনি এসব খুলে ফেলার তাগাদা দেন। একপর্যায়ে তিনি উঠে বসতে চাইলে তাঁকে বসানো হয়। কিছুক্ষণ পর উত্তরমুখি হয়ে শোয়ে যান। এ সময় তাঁর শরীর নিস্তেজ হতে থাকে এবং তাঁকে অস্ফুষ্টস্বরে কিছু পড়তে দেখা যায়। রাত ২ টা ৪০ মিনিটের সময় তিনি ইন্তেকাল করেন’।

এদিকে, গভীর রাতে হাসপাতালে তাঁর অসংখ্য মুরীদ, শুভাকাঙ্খী ও অনুগ্রাহীরা হাসপাতালে ভীড় করেন। ভোররাত ৪টার সময় তাঁকে আলীকদম সরকারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে এ্যাম্বুলেসযোগে খুটাখালীতে নিয়ে যাওয়া হয়।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.