BanshkhaliTimes

হারিয়ে যাওয়ার ১৪ বছর পর ছোটভাইকে ফিরে পেল সাংবাদিক মিজান

BanshkhaliTimes

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাঁশখালী টাইমস: দক্ষিণ চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আল জামিয়া আল ইসলামিয়া জলদী মখজনুল উলুম (বাইঙ্গাপাড়া) বাঁশখালী বড় মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা বিশিষ্ট আলেমেদ্বীন পীরে কামেল মরহুম মাওলানা মোহাম্মদ আলী সাহেবের নাতী, মিশর আল আজাহার বিশ্ববিদ্যালয় ও সৌদিআরব আল বাহা মদিনা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনিয়র অধ্যাপক ড. মাওলানা শিব্বির আহমদের ছোট ভাই লন্ডন “মসজিদুল আবরার” জামে মসজিদের খতিব, আল জামিয়াতুল আরবিয়া মদিনাতুল উলুম রাউজান দেওয়ানপুর মাদ্রাসার সাবেক মোহতামিম, সিএমবি আল মাদ্রাসাতুল ইসলামিয়া তানজিমুল উম্মাহ মাদ্রাসার সহ অসংখ্য মসজিদ মাদ্রাসার মোহতামিম ও খতিব, জলদী মখজনুল উলুম বাইঙ্গাপাড়া (বাঁশখালী বড় মাদ্রাসার) মতোয়াল্লী মরহুম আলহাজ্ব হযরত মাওলানা আবু তাহের সাহেবের তৃতীয় পুত্র সাংবাদিক মুহাম্মদ মিজান বিন তাহেরের ছোট ভাই হাফেজ মুহাম্মদ ছফওয়ান ২০০৮ সালের (১০ অক্টোবর) নিঁখোজ হয়ে যায়। সে সময় তার বয়স ছিল ১০ বছর। নিখোঁজের ১৪ বছর পর গত শুক্রবার (৮ জুলাই) বিকেলে সে নিজ বাড়িতে ফিরে আসে।

এ বিষয়ে মোঃ ছফওয়ানের মেঝ ভাই বাঁশখালীতে কর্মরত দৈনিক মানবকন্ঠ ও দৈনিক আলোকিত বাংলাদেশ পত্রিকার বাঁশখালী প্রতিনিধি তরুণ সাংবাদিক মুহাম্মদ মিজান বিন তাহের জানান- ‘আমার ছোট ভাইটি ২০০৮ সালে হারিয়ে যায়। সে তখন চট্টগ্রাম সেগুন বাগান তা’লীমুল কুরআন মাদ্রাসার হিফজ বিভাগের ছাত্র। তার হারিয়ে যাওয়া নিয়ে ২০০৮ সালের ১৩ অক্টোবর বাঁশখালী থানায় আমার মরহুম পিতা নিখোঁজ হওয়ার বিষয়ে বাঁশখালী থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি নং- ৪৬৫) দায়ের করেন এবং বিভিন্ন প্রশাসনিক দপ্তরে অভিযোগ করেন। আমার ভাইটি আমাদের মাঝে ফিরে আসায় আমি মহান আল্লাহ তা’য়ালার দরবারে হাজার শুকরিয়া আদায় করছি।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top