সহকারী জজ হিসেবে সুপারিশপ্রাপ্ত হলেন বাঁশখালীর মেয়ে ফাহমিদা সুলতানা

BanshkhaliTimes

বাঁশখালী টাইমস: সদ্য অনুষ্ঠিত ১৪শ বাংলাদেশ জুডিসিয়াল সার্ভিস (বিজেএস) পরীক্ষায় এডভোকেট ফাহমিদা সুলতানা তামান্না সহকারী জজ/জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছেন।

তিনি বাঁশখালী উপজেলার ৩নং খানখানাবাদ ইউনিয়নের খুপিয়া ডোংরা গ্রামের সম্ভ্রান্ত মিয়াজান মৌলানা সাহেবের বাড়ির মরহুম নেছার আহমেদ (প্রাক্তন সিনিয়র ক্যামিস্ট,ফেঞ্চুগঞ্জ সার কারখানা) এবং খুরশিদা বেগম এর কনিষ্ঠ কণ্যা। তিন ভাইবোনের মধ্যে একমাত্র বড়ভাই আসাদুজ্জামান চৌধুরী আসাদ বাংলাদেশ ইসলামী ব্যাংকের সিনিয়র প্রিন্সিপাল অফিসার, বর্তমানে হেডঅফিসে কর্মরত আছেন। বড়বোন তানজিমা সুলতানা তানিয়া চট্টগ্রাম জজকোর্টের শিক্ষানবিশ আইনজীবী। তার দাদা ছিলেন তৎকালীন কলকাতা দেওবন্দ মাদ্রাসা থেকে পাগড়িপ্রাপ্ত একজন বিশিষ্ট আলেম, মরহুম খলিলুর রহমান। তার নানার বাড়ি কদম রসুল, তহশিলদার বাড়ি। তিনি বিশিষ্ট বীর মুক্তিযোদ্ধা শামসুল আলম(ভেট্টো) এর মেজো ভাই নুরুল আলমের নাতনী।

এডভোকেট ফাহমিদা সুলতানা তামান্না চট্টগ্রামের স্বনামধন্য প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ফার্স্ট ক্লাস ফার্স্ট হয়ে এলএলবি(অনার্স) ও এলএলএম ডিগ্রী অর্জন করেন। উল্লেক্ষ্য যে তিনি ২০১২ সালে সরকারি হাজী মুহাম্মদ মহসিন কলেজের বিজ্ঞান বিভাগ থেকে এইচএসসি সম্পন্ন করেন এবং কাপাসগোলা সিটি করপোরেশন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২০১০ সালে এসএসসি পাশ করেন।

সততা ও নিষ্ঠার সাথে ক্যারিয়ার গঠন করে জাতির সেবা করার উদ্দেশ্যে তিনি এই পেশায় নিজেকে নিয়োজিত করার স্বপ্ন দেখেন। তিনি বাঁশখালীর একজন গর্বিত সন্তান হিসেবে বাঁশখালীর উন্নয়নে নিজেকে নিয়োজিত করার প্রবল ইচ্ছা ব্যক্ত করেন। এজন্য তিনি সকলের কাছে দোয়া প্রার্থী।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.