সম্পাদকীয়: সাপ্তাহিক নভেরা’র আত্মপ্রকাশ

BanshkhaliTimes

সম্পাদকীয়: সাপ্তাহিক নভেরা’র আত্মপ্রকাশ

সালসাবিলা নকি

সৃষ্টির শুরু থেকেই নারীর ভূমিকা অনস্বীকার্য। পৃথিবীর প্রথম পুরুষ ব্যতীত আর সকলেই এসেছে নারীর গর্ভ থেকে। এই মানব সভ্যতার টিকে থাকা, উন্নতি, সম্মুখে এগিয়ে যাওয়া কোনো কিছুই নারীকে বাদ দিয়ে কল্পনা করা যায় না।

এতো গুরুত্বপূর্ণ হয়েও নারীই রয়ে যায় পেছনে, অন্ধকারে, অবহেলায়। আজকাল নারী উন্নয়নে কিছু বলা, কিছু করা মানে আমরা বুঝি নারী স্বাধীনতার কথা বলা। আর এই স্বাধীনতার মানে এমন দাঁড়িয়েছে আমরা নারীরাই মাঝে মাঝে হাঁপিয়ে উঠে বলি, ‘চাই না ওই লোক দেখানো স্বাধীনতা। শুধু ভালোভাবে সম্মানের সাথে বাঁচতে দাও।’

নারীকে নিয়ে কিছু বলতে গেলেই দেখা যায় আঙ্গুল তোলে অনেকে, বলে উঠে ‘আরে এ তো ফেমিনিস্ট’ (দুঃখের সাথে বলতে হচ্ছে এটা অনেকটা গালির মতো হয়ে গেছে)। আমরা আসলে নারী সংক্রান্ত সবকিছুকে মিলিয়ে-ঝুলিয়ে জগাখিচুড়ি করে ফেলেছি। সুস্থ ও সুন্দরভাবে বেঁচে থাকতে হলে নারীর কী প্রয়োজন, নারী কী চায় সেসব না জেনে, না ভেবেই নারী উন্নয়নে পথে নেমেছি। মিটিং, মিছিল, সভা-সমাবেশে সম-অধিকার ও স্বাধীনতার জন্য লম্বা-চওড়া বক্তব্য দিচ্ছি। কিন্তু আসল লক্ষ্য থেকে সরে যাচ্ছি অনেক দূরে, সেটা হচ্ছে শারীরিক ও মানসিক দিক থেকে নারীর ভালো থাকা।

একজন নারী ভালো থাকলে তার সন্তান ভালো থাকবে। সন্তান ভালো থাকা মানে একটা সমাজ ভালো থাকা। ভালো ও সুস্থ সমাজ গড়ে তুলবে সুন্দর রাষ্ট্র। তাই নারী উন্নয়নের মূল লক্ষ্যবস্তু হওয়া উচিত নারীর সমস্যাগুলো চিহ্নিত করা ও নারীকে ভালো রাখার চেষ্টা করা।

কীভাবে সম্ভব? যদি আমরা সবাই এসব বিষয়ে জানার চেষ্টা করি এবং মেনে চলি, বাস্তবায়ন করি তাহলেই সম্ভব। এজন্যই বাঁশখালী টাইমস অনলাইন নিউজ পোর্টাল উদ্যোগ নিয়েছে, সপ্তাহের একটি দিন নারীর জন্য দিতে। নারীদের বিভিন্ন সমস্যা, সেসব সমাধানের উপায়, নারী উদ্যোক্তা, নারীর সুঃখ-দুঃখ, সফলতার গল্প ইত্যাদি নিয়ে লেখা প্রকাশিত হবে এই নারী পাতায়।

বাঁশখালীর গর্ব উপমহাদেশের বিখ্যাত নারী ভাস্কর নভেরা আহমেদের স্মৃতিকে সমুজ্জ্বল রাখতে এই নারী পাতার নাম ‘নভেরা’ রাখা হয়েছে।

আমরা আশাকরি, ‘নভেরা’তে এমন সব বিষয় উঠে আসবে যা থেকে নারীকেন্দ্রিক প্রচলিত ভ্রান্ত ধারণাগুলো দূর হবে। নারীদের বিভিন্ন সমস্যা সম্পর্কে জানা হবে। সমাধানের উপায় খুঁজে পাওয়া যাবে। সফল নারীদের জীবনী থেকে অনুপ্রেরণা পাবে পিছিয়ে পড়া নারীরা। সর্বোপরি, নারীদের জন্য অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টির পথে সহায়ক হবে।

বাঁশখালী টাইমসের এই উদ্যোগকে আমি আন্তরিকভাবে সাধুবাদ জানাই। নভেরা’র সাথে যুক্ত হতে পেরে আমি অত্যন্ত আনন্দিত ও গর্ববোধ করছি।

এই উদ্যোগকে সফল ও কার্যকরী করতে আপনাদের কাছ থেকে আমরা লেখা আহবান করেছি। সময়োপযোগী গুরুত্বপূর্ণ অনেক লেখা আমরা পেয়েছি। সেখান থেকে বাছাইকৃত লেখাগুলো আজ প্রকাশিত হয়েছে। আশাকরি, ভবিষ্যতেও এভাবে আপনাদের সহযোগিতা পাবো।

বাঁশখালী টাইমস পরিবার, লেখক, পাঠক, শুভাকাঙ্ক্ষী ও সম্পৃক্ত সকলের প্রতি আন্তরিক ধন্যবাদ ও শুভকামনা।

বিভাগীয় সম্পাদক, নভেরা

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.