শিক্ষা বিস্তারে একযোগে কাজ করলে বদলে যাবে বাঁশখালী: মুজিবুর রহমান সিআইপি

সৈয়দ প্রীতম: ‘শিক্ষা বিস্তারে দলমত নির্বিশেষে একযোগে কাজ করলে বদলে যাবে আমাদের সম্ভাবনাময়ী জনপদ বাঁশখালী। একটি এলাকা তথা দেশের সুদূরপ্রসারী লক্ষ্য অর্জনে শিক্ষিত জনগোষ্ঠীর বিকল্প নেই। কেবল শিক্ষার মাধ্যমেই বিশাল জনগোষ্ঠীকে জনসম্পদে পরিণত করা সম্ভব’।
উপরোক্ত কথাগুলো বলেন বিশিষ্ট শিল্পপতি, পূর্বদেশ সম্পাদক আলহাজ্ব মুজিবুর রহমান সিআইপি।

বাঁশখালীভিত্তিক চট্টগ্রামস্থ ছাত্র সংগঠন বাঁশখালী স্টুডেন্টস ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের বর্ণাঢ্য অভিষেক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দিতে গিয়ে তিনি আরও বলেন- ‘শিক্ষিত সমাজরা চাইলে সমাজকে খুব সহজেই পাল্টে দিতে পারে। আজকের ছাত্র আগামী দিনের মন্ত্রী, সচিব-আমলা, উদ্যোক্তা এমনকি দেশের কর্ণধার। তাদের সুন্দর আগামী গড়ার সুযোগ সৃষ্টি করে দেয়ার দায়িত্ব আমাদের সবার। তবেই তারা প্রতিষ্ঠিত হয়ে নিজেদের দায়বদ্ধতা থেকে এলাকার উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে।

দুঃখের সাথে বলছি- শুধুমাত্র রাজনৈতিক বিবেচনায় বিসিএস ক্যাডার হিসেবে নিয়োগের সকল যোগ্যতা থাকার পরেও অনেকের নিয়োগ হয়না। অথচ তারাও এই এলাকার মেধাবী সন্তান। এমন কিছু কাম্য নয় যেটা বাঁশখালীর অগ্রযাত্রা ও সুনামকে ব্যাহত করে।

তিনি প্রতিবেশী কয়েকটি উপজেলার উদাহরণ টেনে আরও বলেন-‘আমি দেখেছি বিভিন্ন উপজেলায় স্ব-স্ব ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠিত ব্যক্তিদের বিস্তারিত তথ্যসমৃদ্ধ ডাটাবেস আছে। বাঁশখালীতে আমার জানা মতে এমন কোন তালিকা নাই। এই ডাটাবেস খুব জরুরী। এটার মাধ্যমে তরুণরা স্ব-স্ব ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠিত অগ্রজদের সহজেই খুঁজে বের করতে পারবে। মূল্যবান পরামর্শ, কর্মসংস্থানে সহায়তাসহ নানাবিধ সুফল ভোগ করবে’।

তিনি আরও বলেন- ‘বাঁশখালীতে প্রয়োজনের তুলনায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সংখ্যা কম। বিশাল জনগোষ্ঠির গুণগত শিক্ষা নিশ্চিত করতে নতুন নতুন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠার বিকল্প নেই।

সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা হিসেবে তিনি বাঁশখালী স্টুডেন্টস ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের সকল শিক্ষা ও সামাজিক উদ্যোগে নিজেকে সম্পৃক্ত রাখার ঘোষণা দেন। সেই সাথে বাঁশখালীকেন্দ্রিক যেকোন সৃজনশীল ও কল্যাণমুখী কর্মকাণ্ডে সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।

গত ২৬ আগস্ট রাত ৮ টায় নগরীর চন্দনপুরায় অনুষ্ঠিত এ অভিষেক অনুষ্ঠানে সংগঠনের সদস্য ছাড়াও বাঁশখালীর সর্বস্তরের বিপুল সংখ্যক ছাত্র এতে যোগ দেন। উৎসবমুখর পরিবেশে অভিষেক অনুষ্ঠান রাত ১১ টা পর্যন্ত চলতে থাকে।

সংগঠনের সভাপতি ফারুক আবদুল্লাহর সভাপতিত্বে ওকান উদ্দিন সাকিবের সঞ্চালনায় এতে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ওয়াসিম আহমেদ, ছাত্রনেতা রায়হানুল হক চৌধুরীসহ বিভিন্ন স্তরের ছাত্রসমাজের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.