লাইভে আসছেন বহুমাত্রিক ‘কর্পোরেট লেডি’ বাঁশখালীর মেয়ে সালমা আদিল

BanshkhaliTimes

বাঁশখালী টাইমস: আজ বাঁশখালী টাইমস লাইভ প্রোগ্রামে অতিথি হিসেবে আসছেন বহুমাত্রিক কর্পোরেট লেডি বাঁশখালীর কৃতিসন্তান সালমা আদিল। বাঁশখালী টাইমস পেজে আজ রাত ৯ টায় আয়োজিত এই অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করবেন বাঁশখালী টাইমস ‘টেক টাইমস’ বিভাগের সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মাহবুব ছোবহান চৌধুরী।

সালমা আদিল বাঁশখালীর মেয়ে; জাতীয় পর্যায়ে নেতৃত্ব দিচ্ছেন শীর্ষস্থানীয় কর্পোরেট ফার্মের। তাঁর কাজের ক্ষেত্র- ব্র‍্যান্ডিং, পাবলিক রিলেশন, এডভার্টাইজিং, উর্ধ্বতন অর্থনৈতিক কর্মকর্তা ইত্যাদি হলেও বিভিন্ন স্বনামধন্য চ্যারিটি ফার্মেও অবদান রেখে চলেছেন সমানতালে। প্রতিষ্ঠা করেছেন সেবামূলক সংগঠন- ‘সালমা-আদিল ফাউন্ডেশন। এছাড়াও কাজ করছেন অটিজম ও নারী উন্নয়ন নিয়ে।

৩ সন্তানের জননী, এই কর্পোরেট ব্যক্তিত্ব কিভাবে সমূহ সীমাবদ্ধতাকে জয় করে নিজেকে নিয়ে গেছেন এক অনন্য উচ্চতায় সেই গল্পই শুনাবেন বাঁশখালী টাইমস লাইভ অনুষ্ঠানে। আশাকরি এই অনুষ্ঠান বাঁশখালীবাসী বিশেষ করে বাঁশখালীর মেয়েদের দারুণভাবে অনুপ্রাণিত করবে।

সালমা আদিল ফিন্যান্স বিষয়ে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেন। এরপর ২০০৪ সাল থেকে চ্যাটার্ড অ্যাকাউন্টেন্ড হিসেবে কূটনৈতিক মিশনে ক্যারিয়ার শুরু করেন। তিনি ঢাকাস্থ আমেরিকান দূতাবাসে দীর্ঘ এক যুগ ধরে কূটনৈতিক দায়িত্ব পালন করেন।

বর্তমানে তিনি ‘Tracker’ এর চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার ( CEO), Top of Mind এবং Masthead PR এর চিফ ফাইন্যান্সিয়াল অফিসার (CFO) হিসেবে কর্মরত আছেন। পাশাপাশি তিনি TOM creations ও Melonades এর ব্যবস্থাপনা পরিচালকের দায়িত্ব পালন করছেন।

পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে সালমা আদিল আমেরিকা, আফ্রিকা, রাশিয়া, নিউজিল্যান্ড, স্কটল্যান্ডসহ পৃথিবীর বহু দেশ ভ্রমণ করেছেন। এসব অভিজ্ঞতা তাঁর ক্যারিয়ার ও দৃষ্টিভঙ্গির জগতকে যথেষ্ট সমৃদ্ধ করেছে।

তাঁর স্বামী বিশিষ্ট মিডিয়া উদ্যোক্তা ও সমাজসেবী জিয়াউদ্দিন আদিল কঙ্গোর রাষ্ট্রদূত হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।
সালমা আদিল খ্যাতিমান কলামিস্ট আহমদুল ইসলাম চৌধুরীর সুযোগ্য কন্যা ও চট্টগ্রামের সাবেক মেয়র মাহমুদুল ইসলাম চৌধুরীর ভাতিজি।

তিন সন্তানের জননী এই নারী, অসামান্য নৈপুণ্যতার সাথে ঘরে ও বাইরে যোগ্যতার স্বাক্ষর রেখে যাচ্ছেন। তিনি একই সাথে সংসার, একাধিক প্রতিষ্ঠানের গুরুত্বপূর্ণ পদ, চ্যারিটি সংস্থাসহ সবকিছু সফলতার সাথে চালিয়ে নিচ্ছেন। নারীর ক্ষমতায়ন নিয়ে তাঁর রয়েছে যথেষ্ট আগ্রহ ও পরিকল্পনা। তিনি চান নারীরা নিজেদের যোগ্যতাবলে কর্পোরেট প্রতিষ্ঠানসহ প্রতিটি সেক্টরে বিচরণ করুক। তারা তাদের যোগ্যতা ও সক্ষমতার প্রমাণ দিক। নেতৃত্ব দিক। বুঝিয়ে দিক তারাও পারে। সালমা আদিল বলেন “আমাদের বিশ্বাস করা উচিত মেয়েরাও নেতৃত্ব দিতে পারে। যেমনটা আমি আমার কোম্পানির ক্ষেত্রে করছি। আমি আমার প্রতিষ্ঠানে সবসময়ই মেয়েদের অগ্রাধিকার দিই। মেয়েরা যাতে স্বস্তি ও সম্মানের সাথে কাজ করতে পারে। এছাড়া যাতে লিঙ্গ বৈষম্যে ও হয়রানির শিকার না হয় সেদিকে যথেষ্ট খেয়াল রাখি।

বিভিন্ন সামাজিক ও দাতব্য উদ্যোগের মাধ্যমে তিনি বাঁশখালী, চন্দনাইশসহ গ্রামাঞ্চলে সেবা দিয়ে যাচ্ছেন।
তিনি চন্দনাইশস্থ এসএন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও প্রাইমারী স্কুলের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। সম্পূর্ণ নিজস্ব খরচে তাঁর গ্রামে একটি অটিজম সেন্টার স্থাপন করেছেন। Heroes For All সংগঠনের বোর্ড মেম্বার ছাড়াও বিভিন্ন সৃজনশীল সংস্থার নেতৃত্ব ও পৃষ্ঠপোষকতা দিয়ে যাচ্ছেন। একজন নারীর পক্ষে কতকিছু করা সম্ভব তিনিই তার প্রকৃষ্ট উদাহরণ।

একজন মেয়ে হিসেবে, মা হিসেবে ‘নারীদের চাকরি করা সম্ভব না’ বলার আগে সালমা আদিল’দের দিকে একবার তাকানো দরকার নয় কি?

লিখেছেন- দিলুয়ারা আক্তার ভাবনা, সহ সম্পাদক- নভেরা ( বাঁশখালী টাইমসের নারীবিষয়ক বিভাগ)

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.