যোগাযোগ ও ড্রেনেজ ব্যবস্থা সংস্কার করবো: মৌলভী নুর হোসেন

BanshkhaliTimes

বাঁশখালী টাইমস: কড়া নাড়ছে পৌরসভা নির্বাচন। সারাদেশের পৌরসভাগুলোতে বিরাজ করছে নির্বাচনী আমেজ। পিছিয়ে নেই চট্টগ্রামের এ গ্রেডের পৌরসভা বাঁশখালীও। এখানে আগেভাগেই বইছে নির্বাচনী হাওয়া। করোনার কারণে নির্বাচন পিছিয়ে যাওয়ার এক খবরে মাঝখানে নির্বাচনী হাওয়া দূর্বল হলেও নির্বাচন কমিশন থেকে যথাসময়ে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে মর্মে খবর বেরুলে ফের সরগরম হয়ে উঠছে বাঁশখালী পৌরসভা নির্বাচনের মাঠ। এই নির্বাচনী আমেজে নতুন মাত্রা যোগ করতে বাঁশখালী টাইমস সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থীদের নিয়ে আয়োজন করেছে সাক্ষাৎকারমূলক বিশেষ ধারাবাহিক ‘নির্বাচনী হাওয়া: প্রার্থীদের মুখোমুখি’

আজকের পর্বে কথা বলেছেন বাঁশখালী পৌরসভার আওয়ামী লীগ দলীয় সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী মৌলভী নুর হোসেন। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন বাঁশখালী টাইমসের সাংবাদিক তাফহীমুল ইসলাম।

বাঁশখালী টাইমস: আসসালামু আলাইকুম, বাঁশখালী টাইমসের আজকের আয়োজনে আপনাকে স্বাগতম জানাচ্ছি। কেমন আছেন?

মৌলভী নুর হোসেন- ওয়ালাইকুমুস সালাম। আলহামদুলিল্লাহ, ভালো আছি। বাঁশখালী টাইমসকেও স্বাগত জানাচ্ছি।

বাঁশখালী টাইমসঃ আপনি কেন জনপ্রতিনিধি হিসেবে আসতে চাচ্ছেন। আপনার দৃষ্টিতে এই এলাকার মূল সমস্যাগুলো কী কী? নির্বাচিত হলে এসব সমস্যা হতে উত্তোরণে আপনি কী কী পদক্ষেপ নিবেন?

মৌলভী নুর হোসেন: গত দশ বছর ধরে বাঁশখালী পৌরসভার যোগাযোগ ব্যবস্থা খুব খারাপ। বর্ষাকালে পৌর এলাকায় জলাবদ্ধতা হয়। মানুষ সঠিক বিচার পাচ্ছে না। বিচার প্রক্রিয়া নিয়ে মানুষ হয়রানির স্বীকার হচ্ছে। জামানতের টাকা আত্মসাৎ হচ্ছে। মেয়র নির্বাচিত হলে এসব সমস্যা সমাধানে আমি প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করবো। আমি পাঁচ বছর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছি। সেই অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে এসব সমস্যা দূর করবো।

বাঁশখালী টাইমসঃ দলীয় মনোনয়নের ব্যাপারে কতটুকু আশাবাদী, দল আপনাকে কেন মূল্যায়ন করবে বলে মনে করেন? মনোনয়ন না পেলে স্বতন্ত্র নির্বাচন করবেন কি?

মৌলভী নুর হোসেন- দলীয় মনোনয়নের ব্যাপারে আমি শতভাগ আশাবাদী। ছাত্রজীবন থেকে আমি আওয়ামী রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত। আশির দশকে আমি বাঁশখালী উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগ সহ সভাপতি ও সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছি। এরপর চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা কৃষক লীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ও বাঁশখালী উপজেলা আওয়ামী লীগের ১১ সদস্য বিশিষ্ট এডক কমিটির সদস্য ছিলাম। ২০০৪ সালে আওয়ামী লীগের দুঃসময়ে বাঁশখালী পৌরসভা নির্বাচনে আমি প্রতিদ্বন্ধিতা করি। এই নির্বাচনে আমার পক্ষে প্রয়াত আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবু, এ বি এম মহিউদ্দীন চৌধুরী, মোসলেম উদ্দিন আহমদ, প্রয়াত সুলতানুল কবির চৌধুরী প্রচারণায় এলে এক গণজোয়ার সৃষ্টি হয়। নির্বাচনে আমি বিজয়ী হলেও তৎকালীন প্রতিমন্ত্রী জাফরুল ইসলাম চৌধুরীর পিএস কামরুল ইসলাম হোসাইনীকে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। একারণে দলের এই সুসময়ে দল আমাকে মনোনয়ন দিবে বলে আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি। আর আমি ২০০৯ সালে বাঁশখালী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিএনপি জামায়াতের সাথে প্রতিদ্বন্ধিতা করে বিপুল ভোটে ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হই। আমি পশ্চিম বাঁশখালী উচ্চ বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির দুই দুইবার সভাপতি ছিলাম। এসব বিষয় বিবেচনা করে দল আমাকে মূল্যায়ন করবে বলে আমি আশা করি।

বাঁশখালী টাইমসঃ আপনার বেড়ে উঠা, পেশাগত পরিচিতি-রাজনৈতিক পরিচিতি ও এলাকায় আপনার সামাজিক কর্মকাণ্ড নিয়ে যদি বলতেন…

মৌলভী নুর হোসেন- আমি নিজ গ্রামেই বড় হয়েছি। ছোটকাল থেকেই আমি ছাত্র রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত ছিলাম। রাজপথেই আমি বড় হয়েছি বলতে গেলে। পেশায় আমি একজন ব্যবসায়ী। এলাকাবাসীর দুঃখ, দুর্দশা লাঘবে সব সময় মানুষের পাশে ছিলাম। করোনাকালীনও আমি অসংখ্য মানুষকে আর্থিক ও খাদ্য সহায়তা দিয়েছি।

বাঁশখালী টাইমসঃ বিজয়ী হলে এই আপনার নির্বাচনী এলাকার সার্বিক উন্নয়নকল্পে কোন কাজগুলো অগ্রাধিকারভিত্তিতে করবেন?

মৌলভী নুর হোসেন- বাঁশখালী পৌরসভার যোগাযোগ ব্যবস্থা ও ড্রেনেজ ব্যবস্থা অত্যন্ত খারাপ। যোগাযোগ ও ড্রেনেজ ব্যবস্থা সংস্কার করবো। বিচারহীনতার সংস্কৃতি দূর করে মানুষের ন্যায়বিচার পাওয়ার অধিকার নিশ্চিত করবো। মাদক ও দুর্নীতি নির্মূলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

বাঁশখালী টাইমসঃ আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ, বাঁশখালী টাইমসকে সময় দেয়ার জন্য।

মৌলভী নুর হোসেন- এমন একটি উদ্যোগের জন্য বাঁশখালী টাইমসের সাথে সংশ্লিষ্ট সবাইকেও ধন্যবাদ। পাশাপাশি আপনাদের মাধ্যমে বাঁশখালী পৌরসভার সর্বস্থরের জনসাধারণকে শুভেচ্ছা।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.