বিশ্বখ্যাত ইন্টেল ও করভোতে বাঁশখালীর ড. তানভীর ও ড. মাশিয়াত দম্পতি

BanshkhaliTimes

আবু ওবাইদা আরাফাত, বাঁশখালী টাইমস: বিশ্বখ্যাত কোম্পানি, প্রযুক্তির দিকপাল ইন্টেল কর্পোরেশন ও স্বনামধন্য প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান আমেরিকাস্থ করভো ইনকর্পোরেশনে উর্ধ্বতন প্রকৌশলী হিসেবে যোগ দিয়েছেন বাঁশখালীর এক প্রকৌশলী দম্পতি।
তাঁরা হলেন ইঞ্জিনিয়ার ড. তানভীর আহমেদ চৌধুরী ও তাঁর স্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার ড. মাশিয়াত সুমাইয়া শওকত।

ড. তানভীর আমেরিকার স্বনামধন্য ইউনিভার্সিটি অব সেন্ট্রাল ফ্লোরিডা থেকে মেকানিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে ২০২১ সালে পিএইচডি ডিগ্রী অর্জন করেছেন৷ ২০১৭ থেকে ২০২১ সাল পর্যন্ত তিনি একই বিশ্ববিদ্যালয়ে রিসার্চ এসিস্ট্যান্ট ও টিচার্স এসিস্ট্যান্ট হিসেবে কাজ করেন। তিনি ইতোপূর্বে বুয়েট থেকে মেকানিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে গ্রাজুয়েশন সম্পন্ন করেন। এই মেধাবী প্রকৌশলী সম্প্রতি আমেরিকার হিলসবরো, অরেগনে অবস্থিত বিশ্বখ্যাত প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান করভো ইনকর্পোরেশনে সিনিয়র ইডিএ (ইলেক্ট্রনিক ডিজাইন অটোমেশন) এপ্লিকেশন ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে যোগদান করেছেন।

তাঁর স্ত্রী ড. মাশিয়াতও সম্প্রতি আমেরিকাস্থ ইন্টেল কর্পোরেশনে এলটিডি মডিউল এন্ড ইন্টিগ্রেশন ইয়েল্ড ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে যোগদান করেছেন। তিনি ইতোপূর্বে ব্র‍্যাক ইউনিভার্সিটি থেকে ইইই বিষয়ে গ্রাজুয়েশন সম্পন্ন করেন।

ড. তানভীর আহমেদ চৌধুরী বাঁশখালী উপজেলার পুকুরিয়া ইউনিয়নের হাজীগাও গ্রামের সন্তান৷ তাঁর পিতা আবদুল মোতালেব চৌধুরী একজন স্বনামধন্য কর্পোরেট ব্যক্তিত্ব ও সমাজসেবী। তিনি বিশ্বনন্দিত মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানি রেকিট বেনকিজারের সেলস এডমিনিস্ট্রেশন ম্যানেজার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

BanshkhaliTimes

উল্লেখ্য, আবদুল মোতালেব চৌধুরীর দ্বিতীয় সন্তান সাব্বির আহমেদ চৌধুরী জার্মানির জন গুটেনবার্গ ইউনিভার্সিটি থেকে ইন্টারন্যাশনাল ইকোনোমিকস এন্ড পাবলিক পলিসি বিষয়ে মাস্টার্স সম্পন্ন করেন। তিনি ২০২১ সালে জার্মানির বিখ্যাত eBay inc তে প্রজেক্ট ম্যানেজমেন্ট ইন্টার্ন হিসেবে যোগদান করেন।

সন্তানদের সফলতা প্রসঙ্গে আবদুল মোতালেব চৌধুরী বাঁশখালী টাইমসকে বলেন- ‘আমি চেষ্টা করেছি তাঁদেরকে ভালো ক্যারিয়ারের দিকে মনোযোগী করতে। নিজেদের প্রচেষ্টায় মহান আল্লাহর রহমতে তারা বিশ্বের স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠানে কাজ করছে। আমি চাই তারা ভালো কিছু করে বাংলাদেশ ও বাঁশখালীর সুনাম ছড়িয়ে দিক৷ ভালো মানুষ হিসেবে মানুষের হৃদয়ে স্থান করে নিক।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.