BanshkhaliTimes

বাঁশখালী উপজেলার শ্রেষ্ঠ সহকারি শিক্ষক নির্বাচিত হয়েছেন পলাশ দেব

বাঁশখালী উপজেলার শ্রেষ্ঠ সহকারি শিক্ষক নির্বাচিত হয়েছেন পলাশ দেব।তিনি পূর্ব সাধনপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক।

তিনি ২০০৬ সালে শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ পান। পূর্ব সাধনপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়কে বাঁশখালীর অন্যতম একটি মডেল স্কুল হিসেবে গড়ে তুলতে পরিশ্রম করে গেছেন তিনি।

শিক্ষকতার পাশাপাশি তিনি অন্য এক নিজস্ব পরিচয়ে স্ব-মহিমায় উজ্জ্বল। তিনি একজন লেখকও বটে। যার তিনটি গ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে- পোড়া চাঁদ, টেমস হতে টাইবারের পথে ও উজান স্রোতের ভেলা।

তিনি জানান, আমি সামাজিক কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ করি। প্রতিটি সেবামূলক এবং সচেতনতামূলক কর্মকান্ডের সাথে থাকতে পছন্দ করি। সাংস্কৃতিক কর্মী, ও সংগঠক হিসেবে কাজ করি আর লিখালিখি করি।
বই পড়ে আনন্দ পাই।

পলাশ দেব কৃতজ্ঞচিত্তে জানান, জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা পদক-২০২২, বাঁশখালী উপজেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ সহকারি শিক্ষক (পুরুষ) ক্যাটাগরিতে নির্বাচিত হওয়ার এক দুর্লভ সম্মাননায় আমি আজ আপ্লুত, শিহরিত আর আনন্দিত। পরম সন্তুষ্টি জ্ঞাপন করছি বিশ্বনিয়ন্তার কাছে। আমার স্কুলের সহকর্মীদের অনুপ্রেরণা ছাড়া আমার এ অর্জন অসম্ভব ছিল।
সম্মানিত উপজেলা নির্বাহী অফিসার মহোদয়, সম্মানিত উপজেলা শিক্ষা অফিসার মহোদয়, সম্মানিত ইউ আর সি ইন্সট্রাক্টর মহোদয় এবং সম্মানিত সহকারি উপজেলা শিক্ষা অফিসার মহোদয়গণের অনুপ্রেরণায় আমার আজকের এই অর্জন।
আমি আরও প্রেরণা পেয়েছি আমার স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির শ্রদ্ধাভাজন সভাপতি এবং সদস্যবৃন্দের কাছে।
সর্বোপরি আমাকে মূল প্রেরণা যারা দিয়েছে সেই প্রাণপ্রিয় শিক্ষার্থীরা।
বাঁশখালীর প্রত্যেক শিক্ষক এবং শিক্ষা পরিবারের কর্মকর্তা, কর্মচারীর ভালোবাসা আমায় এই দুরহ পথে নিরন্তর ভরসা যুগিয়েছে।
তাই এই বিরল সম্মাননার অংশীদারও বাঁশখালীর সমগ্র শিক্ষা পরিবার।
আজ এই অর্জনকে আমি বাঁশখালী শিক্ষা পরিবারের প্রতি উৎসর্গ করলাম।
আর আমার অন্য যে সকল সহকর্মী এ বিশেষ সম্মানে ভূষিত হয়েছেন তাঁদের প্রতি আমার হৃদয়ের গভীরতম অনুভূতি জড়ানো অভিনন্দন ও শ্রদ্ধা জানাচ্ছি।

Spread the love

Leave a Comment

Your email address will not be published.