বাঁশখালীতে জোরপূর্বক জমি দখল ও চার শতাধিক গাছ কেটে নেওয়ার অভিযোগ

মুহাম্মদ মিজান বিন তাহের: বাঁশখালী ( Banshkhali ) উপজেলার শীলকূপ এলাকার জঙ্গল শীলকূপ এলাকায় জোরপূর্বক জমি দখলের অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার সকালে শীলকূপ ইউনিয়নের জঙ্গল শীলকূপ (বাছিরাঘোনা বত্তাতলী) এলাকায়। এ বিষয়ে আজ মঙ্গলবার (০৬ অক্টোবর) বিকেলে তাজুল ইসলাম বাদী হয়ে, চট্টগ্রাম জেলা পুলিশসুপার, জেলাপ্রশাসক, ও স্থানীয় উপজেলা প্রশাসনের কাছে লিখিত অভিযোগ দেন।

ভুক্তভোগী অভিযোগকারী তাজুল ইসলাম জানান, স্থানীয় ছাত্রসংগঠনের পরিচয়দানকারী নেতাদের সহযোগিতায় দীল মোহাম্মদ, মোস্তাক আহমদ, আবদুস শুক্কুর, দিদার, আবু তাহের,আবদুস ছত্তার, আবু ছালেক, নাঈম উদ্দীন, ফারুক, মিজান, রিয়াজ, জসীম উদ্দীন, এলাকায় দাঙ্গাবাজ ও ভূমিদস্যু প্রকৃতির লোক। প্রভাবশালী বলে তাদের বিরুদ্ধে কেউ কোনও প্রতিবাদ করে না। তারা আইন কানুনের তোয়াক্কা করে না। আমাদের শত বছরের পৈত্রিক ওয়ারিশ এবং খরিদা সূত্রে প্রাপ্ত আর এস ৩০৮/২৯৬ ও বি এস খতিয়ানের ২৫৪/২৪৮ দাগে ৮ একর ও অপর বি এস খতিয়ান নং-৮৪ দাগ নং- ২৫২/২৫৩ ও ২৫৬ এর ২২ শতাংশ জমিতে তারা দা, কুড়াল, রাশি এবং গাছ কাটার বিভিন্ন সরঞ্জামাদি নিয়ে আমাদেরকে হত্যার হুমকি দিয়ে উপরোক্ত তফসিল বর্নিত সম্পত্তিতে অবৈধভাবে অনধিকারে প্রবেশ করে আমাদের রোপিত (পেয়ারা, ম্যালেরিয়া, একাশি, আমগাছ ও কাটাল) সহ ৪ শতাধিক গাছ ও ৬ শতক পানের ক্ষেতসহ বিভিন্ন ফলদ গাছ কেটে নিয়ে যায় এবং আমার কাছ থেকে ২ লক্ষ টাাকা চাঁদা দাবি করে আসছে।

BanshkhaliTimes

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত দীল মোহাম্মদ, মোস্তাক আহমদ ও আবদুস শুক্কুরকে সাথে বেশ কয়েকবার মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তাদের কে পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে বাঁশখালী ( Banshkhali ) উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোমেনা আক্তার বলেন, এ ব্যাপারে অভিযোগ পেয়েছি। তদন্তপূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.