বাঁশখালীতে ‘কমিউনিটি পুলিশিং ডে’র আলোচনা সভা ও বর্ণাঢ্য র‍্যালী অনুষ্ঠিত

মুহাম্মদ মিজান বিন তাহের: বাঁশখালীতে কমিউনিটি পুলিশিং ডে উপলক্ষে আলোচনা সভা ও র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ শনিবার (২৮ অক্টোবর) সকাল ১০ টায় এক বিশাল র‌্যালী উপজেলা সদর প্রদক্ষিণ শেষে উপজেলা পরিষদ মাঠে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বাঁশখালী উপজেলা কমিউনিটি পুলিশের সভাপতি ও বাঁশখালী আলাওল ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ ইদ্রিছের সভাপতিত্বে থানা তদন্ত অফিসার (ওসি) শরিফুল ইসলামের সঞ্চালনায় মতবিনিময় সভায় বাঁশখালী থানার কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ থানা ও ওয়ার্ড কমিটির সদস্যগণ অংশ নেন।
আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের অর্থ ও পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য আলহাজ্ব মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী এমপি। প্রধান আলোচক ছিলেন বাঁশখালী থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আলমগীর হোসেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে আলোচনায় অংশ নেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ বদরুল হক, সাফিয়া বেগম, সরল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রশীদ আহমদ চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাধনপুর ইউপি চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন চৌধুরী খোকা, থানা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক শ্যামল কান্তি দাশ, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও বাহারছড়া ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যাপক তাজুল ইসলাম, কালীপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আ.ন.ম. শাহাদত আলম, ছনুয়া ইউপি চেয়ারম্যান হারুনুর রশিদ,পৌরসভা আওয়ামীলীগের যুগ্ন-আহবায়ক ও পৌর কমিউনিটি পুলিশের সভাপতি নীলকন্ঠ দাশ, সহ অন্যান্যরা।

আলোচনা সভায় উপস্থিত সদস্যবৃন্দ পুলিশই জনতা, জনতাই পুলিশ স্লোগানকে ধারন করে বাঁশখালী থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আলমগীর হোসেন বলেন, সমাজে অন্যায়, সন্ত্রাস ও দুর্নীতি দমনে পুলিশের পাশাপাশি জনগণকে এগিয়ে আসতে হবে। সকলের ঐক্যবদ্ধতায় দুর্নীতি রোধ করা সম্ভব হবে। কমিউনিটি পুলিশিং একটি সংগঠনভিত্তিক দর্শন ও ব্যবস্থাপনা যা জনগণকে সম্পৃক্ত করে জনগণ, সরকার ও পুলিশের অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে অপরাধ দমন ও সমস্যার সমাধানকল্পে অপরাধের কারণ দূরীকরণ, অপরাধভীতি হ্রাস ও সমাজের বিভিন্ন সমস্যার সমাধান দেয়।
তিনি আরো বলেন,জনগণের সহায়তা ছাড়া পুলিশের কাজে সফলতা আসবে না। অপরাধমুক্ত সমাজ বিনির্মানে জনগণের সাথে সুসম্পর্ক গড়ে তুলতে হবে। কমিউনিটি পুলিশিং এর মাধ্যমে বাঁশখালীকে সন্ত্রাস জঙ্গিবাদ ও মাদক মুক্ত করতে এবং জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করে সুন্দর করে বাঁশখালীকে সাজাতে হবে। তখন বাঁশখালীতে আর কোন ধরনের অপরাধ মূলক কর্মকাণ্ড পরিচালিত হবে না । বাঁশখালীতে কোন অবস্থাতেই সন্ত্রাস কে মাথাছাড়া দিয়ে উঠতে দেয়া যাবে না। এব্যাপারে দলমত নির্বিশেষে সকলকে একযোগে সজাগ থেকে কাজ করতে হবে। জঙ্গিবাদ, মাদক ব্যবসায়ী, ইভটিজিং, বাল্যবিবাহ রোধ ছাড়াও যে কোন অপরাধমূলক কাজ থেকে নাগরিকগণকে বিরত থাকার জন্যও সভায় অনুরোধ জানানো হয়।
এ সময় তিনি সমাজের যেকোন অপরাধ মূলক কাজ প্রতিরোধ করতে জনগণের সহযোগিতা কামনা করেন।
আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সাংসদ মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী বলেন, পুলিশ-জনতা ঐক্যবদ্ধ হয়ে দেশের উন্নয়নে কাজ করতে হবে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। আশা রাখি সকলের সহযোগিতায় আগামী ২০২১ সালের মধ্যে এ দেশকে ডিজিটাল বাংলাদেশ ও মধ্যম আয়ের দেশ হিসেবে গড়ে তোলা সম্ভব হবে। এছাড়াও সমাজের নানান সমস্যাদির কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, বাল্য বিবাহ, ইভটিজিং, যৌতুক ও মাদকের বিরুদ্ধে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। এ জন্য পুলিশের পাশাপাশি সকল নাগরিককে সচেতন হতে হবে। তিনি বলেন, বর্তমান বিশ্বে নারীদের ভূমিকা অপরিসীম। তাই নারীদেরকেও যেকোন অন্যায় প্রতিরোধে এগিয়ে আসতে হবে এবং পাশা পাশি কমিউনিটি পুলিশিং কার্যক্রম সক্রিয় রাখার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান।

Spread the love

Leave a Comment

Your email address will not be published.