চেচুরিয়া খন্দকারপাড়ায় বার্ষিক ওয়াজ মাহফিল অনু্ষ্ঠিত

চেচুরিয়া খন্দকারপাড়ায় বার্ষিক ওয়াজ মাহফিল অনু্ষ্ঠিত

তাফহীমুল ইসলাম (বাঁশখালী টাইমস): চেচুরিয়া খন্দকার পাড়া যুব উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে ৩ বার্ষিক ওয়াজ মাহফিল চেচুরিয়া বড় মসজিদের মাঠে অনুষ্ঠিত হয়েছে আজ। এতে সভাপতিত্ব করেন- বাঁশখালী উপজেলা জামে মসজিদের সাবেক খতিব মাওলানা নুরুল আলম। মাহফিলে প্রধান বক্তা হিসেবে ঢাকা আজিমপুর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব, বাঁশখালীর কৃতি সন্তান মুফতি সাঈদুল ইসলাম, বিশেষ বক্তা হিসেবে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক মুফতি হারুন ইজহারুল ইসলাম চৌধুরী, জলদী হোসাইনিয়া কামিল মাদরাসার উপাধ্যক্ষ অনলবর্ষী বক্তা মাওলানা আজিজুল ইসলাম, লক্ষীপুর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব মুফতি সাইফুল্লাহ খালেদ উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান বক্তার আলোচনায় মুফতি সাঈদুল ইসলাম বলেন- বেড়ার ঘরে রাতে অন্ধকার হলে ইঁদুরে খোঁচা মারে। বর্তমানে মুসলমানদের কলবেও অন্ধকার নেমে আসায় শয়তান, নাস্তিকরা খোঁচা মারছে। তিনি আরো বলেন- একটি মোরগ গাছের ঢালে বসে থাকাবস্থায় নিচে একটা শিয়াল এলো। শিয়াল মুরগীর উপস্থিতি লক্ষ্য করে মুরগীকে বললেন নেমে এসো, নামাজের সময় হয়েছে,একসাথে নামাজ আদায় করি। শিয়াল এমনটা বলার কারণ কৌশলে মোরগকে গ্রাস করা। ঠিক তেমনি বর্তমানে নারী জাতির অধিকার আদায়ের নামে আমাদের দেশে শাহরিয়ার কবির,ইমরান এইচ সরকাররা নারী জাতিকে বেপর্দা,উলংঘ করার চক্রান্ত করছে। যা এদেশের তৌহিদী জনতা কখনো হতে দেবে না।

মাওলানা মুফতি হারুন ইজহার বলেন- পবিত্র কুরআনে এসেছে- ‘ইসলামই একমাত্র জীবনব্যবস্থা’। কাজেই ইসলাম ছাড়া অন্য কোন ধর্মকে স্মীকৃতি দেয়া যাবে না। আমাদের দেশে ধর্মের বিভিন্ন বিষয়ে মুসলমানের বিভিন্ন জনের,দলের বিভিন্ন মত থাকলেও সবাই মুহাম্মদ (সাঃ) শেষ নবী এটার ব্যাপারে একমত। ইসলামের প্রতিশব্দ হচ্ছে শিরক। অন্যান্য তথাকথিত ধর্মের সবাই শিরক করে। তবে তারা খোদা হিসেবে একজনকে মানে না। যেমন- হিন্দুরা মানে রামকৃষ্ণ, খ্রিষ্টানরা মানে ঈসা আঃ কে। কিন্তু মুসলমান তথা ইসলাম ধর্মের অনুসারীরা সবাই মানে আমাদের নবী মুহাম্মদ (সাঃ)কে। যা অন্যান্য ধর্মের মধ্যে দেখা যায় না। এটিই ইসলাম ধর্ম সত্য ধর্মের অন্যতম পথিক।

মাওলানা আজিজুল ইসলাম জাহান্নামের ভয়াবহতা সম্পর্কে কুরআন হাদীসের আলোকে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করেন।

 

আরও পড়ুন :

পুঁইছড়িতে সীরাতুন্নবী (সা.) মাহফিল অনু্ষ্ঠিত

Spread the love

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *