গভীর নলকূপের অভাবে চেচুরিয়ায় সুপেয় পানির হাহাকার

BanshkhaliTimes

তাফহীমুল ইসলাম, বাঁশখালী- বলা হয় পানির অপর নাম জীবন৷ সেই জীবন পেতে হাহাকার করছে বৈলছড়ি ইউনিয়নের চেচুরিয়া গ্রামের তিন পাড়ার মানুষ। জানা যায়, ইউনিয়নের ৭ নাম্বার ওয়ার্ডের ব্রাহ্মণ পাড়া ও ৮ নাম্বার ওয়ার্ডের শীল ও হিন্দু পাড়া জুড়ে নেই একটি গভীর নলকূপ। ১৪ টি অগভীর নলকূপ থাকলেও শুকনো মৌসুমে বছরের অর্ধেক সময় তাতে পানি উঠে না। যার কারণে এখানকার ৬০ পরিবারের মানুষকে পানি নিয়ে পোহাতে হয় চরম দুর্ভোগ। হয়তো আধা কিলোমিটার দূর গিয়ে আনতে হয় নয়তো কিনে খেতে হয় মানুষের এই নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য। স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, তারা এই সমস্যা সমাধানে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ব্যক্তি ও দপ্তরে ধরণা দিলেও তাতে কোন কাজ হয়নি। এপ্রসঙ্গে স্থানীয় বাসিন্দা ঝুন্টু কুমার দাশ আক্ষেপ করে বলেন, ‘গভীর নলকূপের জন্য আমরা ইতিপূর্বে ইউনিয়ন পরিষদ, উপজেলা পরিষদ বরাবরে দরখাস্ত দিয়েছি। কিন্তু তাতে কোন কাজ হয়নি। সম্প্রতি উপজেলা পরিষদের বরাদ্দে বিভিন্ন এলাকায় গভীর নলকূপ স্থাপন করা হলেও আমাদের দিকে কারো নজর পড়েনি। এই গভীর নলকূপ স্থাপনে একটি অবৈধ লেনদেন হয় বলে শুনেছি। সেই অবৈধ লেনদেনে অক্ষমতার কারণে আমাদের এখানে গভীর নলকূপ স্থাপন হচ্ছে না বলে আমার ধারণা।’

বৈলছড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কফিল উদ্দীন বাঁশখালী টাইমসকে বলেন, ‘সম্প্রতি আমার ইউনিয়নে ১৪ টি গভীর নলকূপ বসানো হয়েছে। ৭ ও ৮ নং ওয়ার্ড মিলে ৮ টি গভীর নলকূপ বসানো হয়। তবু এলাকাবাসীর সুবিধার কথা বিবেচনা করে আরো নলকূপ বসানোর উদ্যোগ নিয়েছি। শিগগির কাজ শুরু হবে।’

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.