কাতালান রিপাবলিকের স্বাধীনতা ঘোষণা: সংকটে স্পেন

২৮ অক্টোবর ২০১৭, শনিবার, কাতালোনিয়া আনুষ্ঠানিকভাবে স্বাধীনতা ঘোষণার পর স্পেন এক গভীর সাংবিধানিক সংকটের মধ্যে পড়েছে। কাতালোনিয়ার আঞ্চলিক পার্লামেন্ট স্বাধীনতার ঘোষণার পক্ষে ভোট দেয়ার পর,পরেই স্পেনের পার্লামেন্ট সেখানে কেন্দ্রের সরাসরি শাসন জারির প্রস্তাব পাশ করেছে। বিগত ৪০ বছরে এই প্রথম স্পেন সাংবিধানিক সংকটে পড়লো।

১৩৫ আসনের আঞ্চলিক পার্লামেন্ট (চেম্বার)-এ ৭০ জন এমপি কাতালোনিয়ার স্বাধীনতার পক্ষে, ১০ জন বিপক্ষে ও দুইজন এমপি অনুপস্থিত ছিলেন। এছাড়া ৫৩ জন বিরোধীদলীয় এমপি চেম্বার ভোটে অংশগ্রহণ করেননি।

ওদিকে কাতালোনিয়া স্বাধীনতা ঘোষণার পর মাদ্রিদে স্প্যানিশ সংসদের উচ্চকক্ষ সিনেট কাতালোনিয়ায় স্বায়ত্বশাসন বাতিলের পক্ষে রায় দিয়েছে। কাতালোনিয়ায় সরাসরি শাসনের পক্ষে ভোট পড়ে ২১৪ আর বিপক্ষে ৪৭টি।

স্পেনের প্রধানমন্ত্রী মারিয়ানা রাজয় বলেছেন, আইন, গণতন্ত্র এবং স্থিতিশীলতা রক্ষার জন্য কাতালোনিয়ায় সরাসরি শাসন জারি করা দরকার ছিল। এছাড়া তিনি কাতালান প্রেসিডেন্ট কার্লেস পুজডেমন-এর সরকার ও কেবিনেটকে বাতিল ঘোষণা করেছেন। পাশাপাশি তিনি আগামী ২১ ডিসেম্বর কাতালান প্রদেশে সাধারণ নির্বাচনের ঘোষণা দিয়েছেন।

কাতালান নেতা কার্লেস পুজডেমন বলেছেন, স্বাধীনতার ওপর গণভোটে কাতালানরা যে রায় দিয়েছেন পার্লামেন্ট সেটাই প্রয়োগ করেছে।

উল্লেখ্য, স্পেনের মোট জনসংখ্যার শতকরা ১৬ ভাগ মানুষের বসবাস স্পেনের স্বায়াত্তশাসিত প্রদেশ কাতালানে। দেশের মোট রপ্তানির শতকরা ২৫.৬০ ভাগের যোগান দেয় কাতালান। স্পেনের মোট জাতীয় আয়ের শতকরা ১৬ ভাগ আসে কাতালান থেকে। স্পেনের বৈদেশিক বিনিয়োগের শতকরা ২০.৭ ভাগের সংস্থান করে কাতালান। কাতালান রিপাবলিকের রাজধানী বার্সেলোনা!

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.