BanshkhaliTimes

করোনা ভাইরাস: এক অনুজীবের কাছে পরাজিত বিশ্ব

BanshkhaliTimes
লেখক: রেজাউল করিম

করোনা ভাইরাস: এক অনুজীবের কাছে পরাজিত বিশ্ব

রেজাউল করিম: আমরা কি কখনো কল্পনা করেছি? মাসাধিক কাল বা তার চেয়েও বেশি সময় ধরে আমরা ঘরে বন্দি থাকব। বন্ধ থাকবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সরকারি অফিস আদালত, ব্যাংক-বীমা, পোশাক তৈরি কারখানা, আমদানি-রপ্তানী প্রক্রিয়া, বিমানপথ, জলপথ, সড়কপথ, রেলপথ, বাজার, রেস্তোঁরা এমনকি মসজিদ!

আমার মনে হয় সারা পৃথিবীর এমন কোনো ব্যক্তি এই ভাইরাস আসার আগ পর্যন্ত একবারও চিন্তা করেনি পৃথিবীতে এমনটা ঘটবে! নিমিষেই সবকিছু থমকে যাবে, সব প্রাণচাঞ্চল্য স্থবির হবে। বিশ্বের পরাশক্তি দেশগুলোর নিত্য নতুন আবিষ্কৃত বোমাবারুদের অহমিকা, পারমাণবিক অস্ত্রের বড়াই, অত্যাধুনিক অস্ত্রের মহড়ার ঝনঝনানি যেনো কানের পর্দা ফেটে যাওয়ার অবস্থা। প্রযুক্তির ব্যবহার যেনো আকাশচুম্বী, সবকিছুই তো হাতের মুঠোয়। আমাদের জন্য কি লাগে?
কিন্তু একটি ক্ষুদ্র ভাইরাস ধ্বংসের কোনো শক্তি আমরা এখনো দেখাতে পারিনি।

ক’দিন আগেও আরাকানের মুসলমানদের উপর চালানো হত্যাকান্ড, পাক-ভারত যুদ্ধের দামামা, কাশ্মীরের মুসলমানের উপর অত্যাচার, ফিলিস্তিনী মুসলমানদের উপর নির্যাতন, দিল্লিতে মসজিদের মিনার ভেঙ্গে উল্লাস, ইয়েমেনে হামলার ভয়াবহ দৃশ্য পুরো বিশ্বের কাছে এখনও দেদীপ্যমান!

কোটি মানুষকে কাঁদানো সিরিয়ার সেই শিশুটির মৃত্যুর পূর্বে আল্লাহকে সব বলে দিব বলে যে অভিমান! তা তো আমাদেরকে এতোটা ভাবাতে পারেনি!

স্পেনে পাঁচশ বছরের নিষেধাজ্ঞা তুলে মসজিদে আজান দেওয়ার ইতিহাস রচিত হওয়ার ঘটনা আমাদেরকে কি জানান দেয়!

একদিন স্কুলে না গেলে বাচ্চার পড়াশোনার বিশাল ক্ষতি হয়ে যাবে, কর্মকর্তা অফিসে আসতে পাঁচ মিনিট দেরি করলে ম্যানেজমেন্টের শাস্তি, একদিন হরতাল ডাকলে দেশের অর্থনীতির বড় ক্ষতি বলে সোচ্চার মানুষগুলো আজ সংবাদপত্র এবং টেলিভিশনের পর্দায় কতো অনুরোধের সুরে প্রচার করছে ‘সবাই ঘরে থাকুন’। টিভির পর্দায় এসে যে সরকার প্রধান কখনো মাথা নত হয় এমন বক্তব্য রাখেনি, সবাইকে সাহস দিতেন তিনিও আজ বড়ই অসহায়।

রোগ নিয়ন্ত্রণ সংস্থার প্রধান যিনি প্রতিদিন সবাইকে আপডেট দিতেন এবং এই রোগ সম্পর্কে সবাইকে সতর্ক করতেন তিনি যখন একই রোগে আক্রান্ত তখন কোনো গবেষকের বলার কোনো পরিস্থিতি থাকেনা।

যারা সমাজে সম্মানের আসনে বসে চোরের বিচার করতো তারা যখন চাল চোর হিসেবে বরখাস্ত হয় তখন আমাদের শিক্ষা নেওয়া এবং শিক্ষা পাওয়ার অনেককিছু থাকে।

মৃত্যুর পর যখন সবচেয়ে আপন মানুষগুলো কাছে আসেনা, নিজের সন্তান কিংবা বাবা যখন লাশের পাশে বসে কোরআন পড়েনা, সবচেয়ে কাছের দোস্তটাও জানাজায় শরীক হয়না তখন সেখান থেকে শিক্ষা না নেওয়ার উপায় থাকেনা।

সব রুটিন এলোমেলো করে দিয়ে, সব পরিকল্পনা ভেস্তে দিয়ে সবাইকে যখন অসহায় করে দিতে পারে একটি ক্ষুদ্র অনুজীব, তখন বুঝতে হবে এর পেছনে অদৃশ্য শক্তি রয়েছে। এটি হতে পারে আমাদের জন্য কৃতকর্মের ফল এবং কৃতকর্মের শাস্তি, অথবা হতে পারে আমাদের জন্য শিক্ষা।

লেখক: ব্যাংকার

Spread the love

Leave a Comment

Your email address will not be published.