‘আমার মুক্তিযোদ্ধা বাবাকে অসম্মানে প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিচার চাই’

BanshkhaliTimes

মু. মিজান বিন তাহের, বাঁশখালী টাইমস: জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু হত্যার প্রথম প্রতিবাদকারী ও চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগ ও যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মুক্তিযাদ্ধা শহীদ মৌলভী সৈয়দ আহমদের বড় ভাই বীর মুক্তিযাদ্ধা ডা. আলী আশরাফকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদা হতে বঞ্চিত করার প্রতিবাদে ছাত্রলীগ, মুক্তিযোদ্ধা মঞ্চ ও আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবু ছাত্র পরিষদের উদ্যােগে বিক্ষোভ মিছিল বুধবার (২৯ জুলাই) বিকাল ৪ টায় বাঁশখালী উপজেলা চত্ত্বরে অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় মরহুম বীরমুক্তিযোদ্ধা ডা. আলী আশরাফের ছোট ছেলে জহির উদ্দীন মোহাম্মদ বাবর বলেন, ‘মৃত্যুর পরে আমার আব্বা বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. আলী আশরাফের মৃত্যুর সংবাদ এবং জানাযার সময় আমরা উপজেলা প্রসাশনকে অবহিত করি। কিন্তু প্রসাশনের পক্ষ থেকে আমার বাবাকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদা দেওয়া হয়নি। জানাযার প্রায় ৩০ মিনিট পর উপজেলা প্রসাশনের পক্ষ থেকে সহকারী কমিশনার (ভূমি) আতিকুল ইসলামবমুক্তিযোদ্ধার দাফন সম্পন্ন হওয়ার পর জানাযাস্থলে আসেন। জানাজার নির্দিষ্ট সময় অতিবাহিত হওয়ার পরেও কিছু সময় উপজেলা প্রশাসনের জন্য অপেক্ষা করে রাষ্ট্রীয় মর্যাদা ছাড়াই দাফন কার্য সম্পন্ন করি। আমি মনে করি এটা সম্পূর্ণ রাজনৈতিক প্রতিহিংসা। একজন মুক্তিযোদ্ধাকে এভাবে অসম্মান জানাবে কখনও ভাবিনি। আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে এই ন্যাক্কারজনক ঘটনার সুবিচার চাই।’

উল্লেখ্য, ডা. আলী আশরাফ (৮৫) গত রবিবার উপযুক্ত চিকিৎসা না পেয়ে (২৬ জুলাই) দুপুরে চট্টগ্রামের একটি হাসপাতালে মারা যান। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী ৩ পুত্র ৫ কন্যাসহ অসংখ্যা আত্মীয়বস্বজন রেখে যান। তিনি বাঁশখালী উপজলা আওয়ামীলীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক ছিলেন। সোমবার (২৭ জুলাই) রাষ্ট্রীয় মর্যাদা না দিয়ে নামাযে জানাযা শেষে বাঁশখালীর দক্ষিন শেখেরখীলেত লালজীবন এলাকার হাছনি বাপের জামে মসজিদ সংলগ্ন কবরস্থানে দাফন করা হয়।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published.